প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

বিয়ের পর তিন মাস কাটতে না-কাটতেই শ্বশুরবাড়িকে মৃত্যু বধূর, গ্রেফতার স্বামী

  • মৃতের পরিবারের দাবি, সোমবার বিকেলে তাদের ফোনে জানানো হয় তাপসী গুরুতর অসুস্থ। তাকে হাবরা স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

বিয়ের ৩ মাস ১০ দিনের মাথায় শ্বশুবাড়ির নির্যাতনে বধূমৃত্যুর অভিযোগ হাবরায়। ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী রুবেল দাসকে গ্রেফতার করেছে অশোকনগর থানার পুলিশ। মৃতার পরিবারের অভিযোগ, স্বামীর পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় খুন হতে হয়েছে ওই তরুণীকে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ডিসেম্বরে অশোকনগরের নিচু কায়াডাঙার বাসিন্দা তাপসী বিশ্বাসের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল বিয়ে হয়েছিল হাবরার বনবনিয়ার বাসিন্দা রুবেল দাসের। সোমবার রাতে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাঁকে হাবরা হাসপাতালে নিয়ে এলে তাপসীকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

মৃতের পরিবারের দাবি, সোমবার বিকেলে তাদের ফোনে জানানো হয় তাপসী গুরুতর অসুস্থ। তাকে হাবরা স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। হাসপাতালে পৌঁছে দেখি তাঁর মৃত্যু হয়েছে। দেহে একাধিক চিহ্ন দেখা গিয়েছে। হাসপাতালের কর্মীরা জানান, হাসপাতালে আনার আগেই মৃত্যু হয়েছিল তাপসীর।

মৃতার এক আত্মীয় জানিয়েছেন, তাপসীকে মারধর করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছিল বলে অনুমান। রুবেলের সঙ্গে ওর এক বউদির বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। তা নিয়ে বিয়ের পর থেকেই দাম্পত্য কলহ লেগে থাকত। সেজন্যই তাপসীকে খুন করা হয়েছে বলে অনুমান।

দেহটি বারাসত জেলা হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। মৃতার পরিজনদের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে রুবেল দাসকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।



বন্ধ করুন