বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > শুভেন্দু বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব জমা, কাঁথির সমবায় ব্যাঙ্কে টানটান উত্তেজনা
শুভেন্দু অধিকারী (PTI)
শুভেন্দু অধিকারী (PTI)

শুভেন্দু বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব জমা, কাঁথির সমবায় ব্যাঙ্কে টানটান উত্তেজনা

  • আবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি সমবায় ব্যাঙ্ক থেকে তাঁর অপসারণের দাবিতে অনাস্থা প্রস্তাব জমা দেওয়া হয়েছে।

কন্টাই কো–অপারেটিভ ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব জমা পড়ল। আর তাতেই বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর ওপর চাপ বাড়ানো শুরু করল তৃণমূল কংগ্রেস বলেও মনে করা হচ্ছে। নয়াদিল্লিতে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতার সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎ নিয়ে তোলপাড় করে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। আবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি সমবায় ব্যাঙ্ক থেকে তাঁর অপসারণের দাবিতে অনাস্থা প্রস্তাব জমা দেওয়া হয়েছে। ওই ব্যাঙ্কের সাত ডিরেক্টরের সই করা অনাস্থা প্রস্তাব সংস্থার সেক্রেটারি পার্থপ্রতিম পতির কাছে জমা পড়েছে। এমনকী দ্রুত তলবি সভা ডাকার আবেদন জানানো হয়েছে। ব্যাঙ্কের মোট ১৪জন ডিরেক্টরের মধ্যে ১২জন ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। সংখ্যাগরিষ্ঠ ডিরেক্টর অনাস্থা প্রস্তাবে সই করায় শুভেন্দুর চেয়ারম্যান পদে থাকা একপ্রকার অসম্ভব বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে পদ্ধতি এবং প্রথা মেনে ব্যাঙ্কের ডিরেক্টররা অনাস্থা জমা দিলেও এই পরিকল্পনার পিছনে তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্বের হাত রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। কয়েকদিন আগেই এই ব্যাঙ্কের বাইরে অবস্থান বিক্ষোভ করেছিল তৃমমূল কংগ্রেস। মৎস্যমন্ত্রী অখিল গিরি, শুভেন্দুর প্রভাব খাটিয়ে পদে থাকা নিয়ে সোচ্চার হয়েছিলেন। কন্টাই কো–অপারেটিভ ব্যাঙ্ক এক সময় আরবান কো–অপারেটিভ হিসেবে উত্তর–পূর্ব ভারতের শ্রেষ্ঠ ছিল। এখনও ওড়িশার কটক কো–অপারেটিভের পর দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কন্টাই কো–অপারেটিভ। চার–পাঁচটি জেলায় এই ব্যাঙ্কের শাখা ছড়িয়ে আছে। সেই ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধেই আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকারের অর্থদফতর ‘স্পেশাল অডিট’ করছে। কাঁথি থানায় অনিয়মের অভিযোগও দায়ের হয়েছে।

জানা গিয়েছে, শুভেন্দু যাতে ওই ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান পদে না থাকেন, তা নিশ্চিত করতে সব উদ্যোগ নেওয়া শুরু হয়েছে। ২০০৯ সালে তমলুকের সাংসদ নির্বাচত হওয়ার পর কাঁথি সমবায় ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান হয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তখন থেকেই তিনি ওই পদে রয়েছেন। ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর মেদিনীপুরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দেন শুভেন্দু অধিকারী। দলবদল করার আগেই রাজ্যের মন্ত্রিসভা ও বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক। কিন্তু পূর্ব মেদিনীপুরের জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বের অভিযোগ, এখনও অবৈধভাবে একাধিক সমবায় ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন শুভেন্দু।

নোট বাতিলের সময় আর্থিক অনিয়ম থেকে ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে ঘনিষ্ঠদের সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার নানা অভিযোগ ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে উঠেছে। গত ১৪ জুন ওই ব্যাঙ্কের শেয়ারহোল্ডার সদস্য রীনা দাস এই নিয়ে কাঁথি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত ইমেজের কথা ভেবে লভ্যাংশ থেকে দেদার অর্থ সামাজিক খাতে ব্যয় করা হয়েছে বলে অভিযোগ। গত সপ্তাহে শুভেন্দু অধিকারীকে বিভিন্ন সমবায় ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান পদ থেকে সরানোর প্রক্রিয়া শুরুর ইঙ্গিত দিয়েছেন রাজ্যের সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায়।

মৎস্যমন্ত্রী অখিল গিরির কাছেও অনাস্থার কপি পাঠানো হয়েছে। রাজ্য সরকারের নির্দেশে ওই ব্যাঙ্কে এখন স্পেশাল অডিট চলছে। তার মধ্যেই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা জমা পড়ল। চেয়ারম্যান বিরোধী শিবিরের পাল্লা ভারী হওয়ায় তলবি সভার দিকে তাকিয়ে সবপক্ষ। শুভেন্দু কাঁথি সমবায় ব্যাঙ্ক–সহ কাঁথি কার্ড সমবায় ব্যাঙ্ক এবং বিদ্যাসাগর সেন্ট্রাল সমবায় ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন। কাঁথির পাশাপাশি ওই সমবায় ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান পদ থেকেও তাঁকে সরানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে রাজ্য সমবায় দফতর বলে সূত্রের খবর।

বন্ধ করুন