বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সিংহাসন পড়েই রইল, চলে গেল বিশ্বের প্রবীণতম বাঘ ‘রাজা’

সিংহাসন পড়েই রইল, চলে গেল বিশ্বের প্রবীণতম বাঘ ‘রাজা’

নিহত রাজাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক ও অন্য প্রশাসনিক কর্মীরা।

বনাধিকারিকরা জানাচ্ছেন, রাজাকে যখন দক্ষিণ খয়েরবাড়িতে আনা হয়েছিল তখন তার বয়স ছিল ১১ বছর। সুন্দরবন থেকে উদ্ধার করে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল ডুয়ার্সে। কারণ, নদী পেরনোর সময় কুমিরে খেয়ে নিয়েছিল তার পিছনের পা।

মৃত্যু হল বিশ্বের সব থেকে বেশি বয়সি রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের। বিশ্বরেকর্ডে শরিক হওয়ার মাত্র ২ মাস বাকি থাকতেই চলে গেল দক্ষিণ খয়েরবাড়ি ব্যঘ্র পুনর্বাসন কেন্দ্রের একমাত্র বাসিন্দা রাজা। রবিবার গভীর রাতে মৃত্যু হয় প্রবীণ বাঘটির। তার পর থেকেই শোকের আবহ জলদাপাড়া অভয়ারণ্যের বনকর্মীদের মধ্যে। মৃত্যুকালে রাজার বয়স হয়েছিল ২৫ বছর ১০ মাস।

বাঘেদের জীবনকালের রেকর্ড কানপুর চিড়িয়াখানর বাসিন্দা একটি বাঘের। ২৬ বছর বেঁচেছিল সে। আগামী ২৩ অগাস্ট সেই রেকর্ড ছোঁয়ার কথা ছিল রাজার। সেজন্য প্রস্তুতিও চলছিল। কিন্তু তার মধ্যেই সিংহাসন পড়ে রইল। চলে গেল রাজা।

বনাধিকারিকরা জানাচ্ছেন, রাজাকে যখন দক্ষিণ খয়েরবাড়িতে আনা হয়েছিল তখন তার বয়স ছিল ১১ বছর। সুন্দরবন থেকে উদ্ধার করে তাকে আনা হয়েছিল ডুয়ার্সে। কারণ, নদী পেরনোর সময় কুমিরে খেয়ে নিয়েছিল তার পিছনের পা। এই অবস্থায় তাকে জঙ্গলে ছাড়লে মৃত্যু নিশ্চিত ছিল। তাই বাঘটিকে বদ্ধ জায়গায় রাখার সিদ্ধান্ত হয়। এর পর বনকর্মীদের লাগাতার চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে ওঠে বাঘটি। বাঘটিকে সুস্থ করে তুলতে বিশেষ উদ্যোগী হন চিকিৎসক প্রলয় মণ্ডল ও বনকর্মী পার্থসারথি সিনহা। রাজার মৃত্যুতে সন্তান হারানোর বেদনা গ্রাস করেছে তাদের।

বলে রাখি, জঙ্গলে রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার সাধারণত ১২–১৪ বছর বাঁচে। বন্ধ জায়গায় তাদের আয়ু হয় গড়ে ১৮ বছর। তবে কোনও কোনও ক্ষেত্রে ২০ বছরের বেশিও বাঁচতে দেখা গিয়েছে তাদের।

 

বন্ধ করুন