বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Hoogly murder: মিছিলে যোগ না দেওয়ায় শাস্তি, প্রৌঢ়কে পিটিয়ে খুন, কাঠগড়ায় বিজেপি

Hoogly murder: মিছিলে যোগ না দেওয়ায় শাস্তি, প্রৌঢ়কে পিটিয়ে খুন, কাঠগড়ায় বিজেপি

প্রৌঢ়কে খুনের অভিযোগ। নিজস্ব ছবি

কৃষ্ণ একটি আলু স্টোরে দিনমজুরের কাজ করতেন। কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত নন। গত কাল রবিবার বিজেপির তরফে চুঁচুড়ার খাদিনা মোড়ে একটি ধিক্কার মিছিল আয়োজন করা হয়েছিল। সেই মিছিলে বিজেপির সর্ব ভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং দলের সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় ছিলেন। 

মিছিলে যোগ না দেওয়ার অপরাধে এক প্রৌঢ়কে পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠল। এই ঘটনায় কাঠগড়ায় বিজেপি। ঘটনাটি হুগলির পান্ডুয়ার বেড়েলা গ্রামের। ওই প্রৌঢ় বিজেপি মিছিলে যোগ দেননি সেই কারণে তাকে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে বলে বলে অভিযোগ। মৃতের নাম কৃষ্ণ রায়। এই ঘটনায় কয়েকজন বিজেপি কর্মীর বিরুদ্ধে থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে মৃতের পরিবার। এ নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা।

পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, কৃষ্ণ একটি আলু স্টোরে দিনমজুরের কাজ করতেন। কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত নন। গত কাল রবিবার বিজেপির তরফে চুঁচুড়ার খাদিনা মোড়ে একটি ধিক্কার মিছিল আয়োজন করা হয়েছিল। সেই মিছিলে বিজেপির সর্ব ভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং দলের সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় ছিলেন। মিছিলে যাওয়ার জন্য কৃষ্ণকে বিজেপি কর্মীরা ফতোয়া দিয়েছিল বলে অভিযোগ। কিন্তু, সেই মিছিলে তিনি যেতে চাননি। এরপর রাতে পাড়ার ক্লাব থেকে তাকে ডেকে নিয়ে গিয়ে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে বলে তার স্ত্রীর অভিযোগ।

এ নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। পান্ডুয়া ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অসিত চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘এই ঘটনায় দোষী বিজেপি কর্মীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই আমরা। প্রশাসনের কাছে আবেদন জানাব যাতে এই নিয়ে পদক্ষেপ করা হয়। আমরা মৃতের পরিজনদের সঙ্গে রয়েছে।’ যদিও এই অভিযোগকে অস্বীকার করেছেন হুগলি সাংগঠনিক জেলার বিজেপি সভাপতি তুষার মজুমদার। তিনি বলেন, ‘এই অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এবং মিথ্যা। বিজেপি এই ধরনের কাজ করতে পারে না। তৃণমূল জোর করে মিটিং মিছিলের জন্য লোক নিয়ে যায়। বিজেপি এসব করে না। যারা খুনের ঘটনায় জড়িত তারা বিজেপি কর্মী নয়।’

বন্ধ করুন