বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পার্থ গ্রেফতার হতেই বেপাত্তা পশ্চিম মেদিনীপুরের বিজেপি নেতা
প্রতীকি ছবি

পার্থ গ্রেফতার হতেই বেপাত্তা পশ্চিম মেদিনীপুরের বিজেপি নেতা

  • স্থানীয়রা জানিয়েছেন, এলাকায় বহু বেকারের কাছ থেকে চাকরি দেওয়ার নাম করে টাকা নিয়েছিলেন অজিতাভ। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেফতারির পর থেকে তাকে খুঁজছে চাকরিপ্রার্থীরা। কিন্তু কোথাও তার সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না।

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করেছে ইডি। তাঁর বান্ধবী অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ২টি ফ্ল্যাট থেকে পাওয়া গিয়েছে প্রায় ৫০ কোটি টাকা। ১ সপ্তাহ ধরে যা নিয়ে তুমুল ডামাডোল চলছে রাজ্যে। আর এরই মধ্যে নিখোঁজ পশ্চিম মেদিনীপুরের মোহনপুরের এক বিজেপি নেতা। অজিতাভ সাউ নামে ওই বিজেপির ওই মণ্ডল সভাপতি চাকরি দেওয়ার নাম করে বহু মানুষের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা তুলেছিলেন বলে অভিযোগ। আর এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে দলের জেলা সাধারণ সম্পাদকের স্পষ্ট স্বীকারোক্তি, দলের ওপর তলার মদত ছিল।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, এলাকায় বহু বেকারের কাছ থেকে চাকরি দেওয়ার নাম করে টাকা নিয়েছিলেন অজিতাভ। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেফতারির পর থেকে তাকে খুঁজছে চাকরিপ্রার্থীরা। কিন্তু কোথাও তার সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। টাকা ফেরতের দাবিতে পুলিশের দ্বারস্থ হওয়ার পরিকল্পনা করছেন প্রতারিতরা।

প্রতারণার শিকার এক যুবক বলেন, ‘১০ লক্ষ টাকা দিয়েছিলাম শিক্ষকের চাকরির জন্য। গত ২ বছর ধরে ঘোরাচ্ছে। পার্থবাবু গ্রেফতার হওয়ার পর টাকা ফেরত চাইতে গিয়েছিলাম। কিন্তু অজিতাভবাবুকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সাত দিন ধরে নিখোঁজ তিনি। ফোনেও যোগাযোগ করা যাচ্ছে না তাঁর সঙ্গে।’

অভিযোগ মেনে নিয়ে বিজেপির পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সাধারণ সম্পাদক গৌরীশঙ্কর অধিকারী বলেন, ‘দলের ওপরতলার নেতাদের মদতে ও টাকা তুলেছে। অনেকের চাকরিও হয়েছে। এর থেকে বেশি কিছু জানি না।’ ওদিকে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নামে টাকা তোলার অভিযোগে পশ্চিম মেদিনীপুরে বিশ্বজিৎ সিং নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

বন্ধ করুন