বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সিমলাগড় স্টেশন বেসরকারিকরণের অভিযোগ, প্রতিবাদে অবস্থান-বিক্ষোভ যাত্রীদের
সিমলাগড় স্টেশনে অবস্থান-বিক্ষোভ। নিজস্ব ছবি।

সিমলাগড় স্টেশন বেসরকারিকরণের অভিযোগ, প্রতিবাদে অবস্থান-বিক্ষোভ যাত্রীদের

  • সম্প্রতি এই স্টেশনকে ঠিকাদারদের হাতে তুলে দিয়ে হল্ট করে দেওয়া হয়েছে। চলতি মাসের গোঁড়ার দিকে এই নির্দেশিকা জারি হয়।

হুগলির শতাব্দী প্রাচীন সিমলাগড় স্টেশনকে বেসরকারিকরণ করার অভিযোগ তুললেন এলাকার সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে এলাকার নিত্যযাত্রীরা। এরই প্রতিবাদে আজ ওই স্টেশনে অবস্থান বিক্ষোভ করলেন নিত্যযাত্রী থেকে শুরু করে বহু সাধারণ মানুষ। কার্যত ফেস্টুন, ব্যানার নিয়ে টিকিট কাউন্টারের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করেন তারা। তাদের অভিযোগ, এই স্টেশনকে বেসরকারি সংস্থা হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। এই মর্মে নির্দেশিকা জারি করে হয়েছে। অবিলম্বে তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা।

তাদের বক্তব্য, আগে এই স্টেশনে দূরপাল্লার কিছু ট্রেন দাঁড়াত। কিন্তু, সম্প্রতি এই স্টেশনকে ঠিকাদারদের হাতে তুলে দিয়ে হল্ট করে দেওয়া হয়েছে। চলতি মাসের গোঁড়ার দিকে এই নির্দেশিকা জারি হয়। তারপরেই টিকিট কাউন্টার থেকে গোটা প্ল্যাটফর্ম বেসরকারি ঠিকাদারের হাতে চলে যায়। তাদের আশঙ্কা, এই স্টেশনকে হল্ট করার ফলে হয়তো আগামী দিনে এই স্টেশনে ট্রেনের সংখ্যা আরও কমবে।

কার্তিক দত্ত নামে এক বিক্ষোভকারীর অভিযোগ, ‘শুধু ট্রেনের ক্ষেত্রে যে তারা পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন তাই নয়, টিকিটের ক্ষেত্রেও তারা পরিষেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। আগে এই স্টেশন থেকে হাওড়া স্টেশনে একটি টিকিটেই যাওয়া যেত। আর এখন সরাসরি হাওড়া পর্যন্ত টিকিট পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে ব্রেক জার্নি করে হাওড়া যেতে হচ্ছে। সিমলাগর থেকে ব্যান্ডেল এবং ব্যান্ডেল থেকে হাওড়া যেতে হচ্ছে। এর জন্য খরচও বেশি পড়ে যাচ্ছে।’ ১৫ টাকার টিকিটের জায়গায় ২০ টাকা খরচ হচ্ছে বলে তার অভিযোগ। তাছাড়া, কাগজের টুকরোতে স্টাম্প মেরে টিকিট দেওয়া হচ্ছে। অবিলম্বে এসব বন্ধ করে এই স্টেশনকে পুরনো ছন্দে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা।

বন্ধ করুন