বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > এক্সপ্রেস ট্রেনে জল ভরতে ভুলে গেল রেল কর্তৃপক্ষ, হাওড়া স্টেশনে তুমুল অশান্তি
এক্সপ্রেস ট্রেন।

এক্সপ্রেস ট্রেনে জল ভরতে ভুলে গেল রেল কর্তৃপক্ষ, হাওড়া স্টেশনে তুমুল অশান্তি

  • যার জেরে এদিন হাওড়া স্টেশনে রেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন যাত্রীরা।

এক্সপ্রেস ট্রেনে জল নেই। অথচ প্রচণ্ড গরমে কাহিল অবস্থা মানুষের। এই পরিস্থিতিতে জলই মিলল না এসি ট্রেনের বাথরুমে বলে অভিযোগ। আর জল না পেয়ে বিপাকে পড়েন যাত্রীরা। যার জেরে এদিন হাওড়া স্টেশনে রেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন যাত্রীরা। যদিও রেলের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যাত্রীদের অভিযোগ সম্পূর্ণ সত্যি নয়।

ঠিক কী ঘটেছে হাওড়া স্টেশনে?‌ যাত্রীদের সূত্রে খবর, ডাউন রামপুরহাট হাওড়া এক্সপ্রেসের এসি কোচে জল না থাকার অভিযোগ ওঠে। তার জেরে যাত্রীরা ঝামেলা শুরু করেন। জল না মেলায় ট্রেনে হাহাকার দশা শুরু হয়। তারপর ট্রেনটি হাওড়া স্টেশনের ৭ নম্বর প্ল্যাটফর্মে ঢুকলে যাত্রীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। কারণ রামপুরহাট স্টেশনে ট্রেনটি ছাড়ার পর সি ওয়ান এসি কোচের চারটি শৌচালয়েই কোন জল ছিল না। তাই চরম সমস্যায় পড়েন ওই কোচের যাত্রীরা।

কেন জল মিলল না ট্রেনে?‌ ট্রেনে জল না মেলায় যাত্রীরা অভিযোগ দায়ের করেন রেল কর্তৃপক্ষের কাছে। এমনকী রেলের টিকিট পরীক্ষককে যাত্রীরা অভিযোগ করলে তিনি বলেন, ‘‌জল ভরতে ভুলে গিয়েছে। তাই এই সমস্যা।’‌ এই অভিযোগ সামনে এনেছেন যাত্রীরা। যাত্রীদের অভিযোগ, ‘‌রেলের কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল, রামপুরহাট থেকে জল তুলতেই ভুলে গিয়েছেন তাঁরা।’‌

ঠিক কী বলছে রেল কর্তৃপক্ষ? এই বিষয়ে‌ পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক একলব্য চক্রবর্তী বলেন ‘‌যাত্রীদের অভিযোগ সবটা ঠিক নয়। রামপুরহাট থেকে জল ছিল না এটা মিথ্যে অভিযোগ। বর্ধমানের পর থেকে ২৫ মিনিট জল ছিল না। পাইপলাইনে কিছু গণ্ডগোলের কারণে এই সমস্যা দেখা গিয়েছিল। পরে তা ঠিক হয়ে যায়।’‌

বন্ধ করুন