বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > MRI: এমআরআই করাতে গিয়ে বিপত্তি! মেশিনের ভিতর ২ ঘণ্টা আটকে থাকলেন রোগী
এমআরআই মেশিনে আটকে থাকল রোগী। প্রতীকী ছবি

MRI: এমআরআই করাতে গিয়ে বিপত্তি! মেশিনের ভিতর ২ ঘণ্টা আটকে থাকলেন রোগী

  • রোগীর নাম মুমতাজ বেগম। শারীরিক সমস্যার কারণে তিনি গতকাল বিকেলে ওই নার্সিংহোমে এমআরআইয়ের জন্য গিয়েছিলেন। সেখানে যাওয়ার পর তাকে এমআরআইয়ের জন্য ভিতরে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু, দীর্ঘক্ষণ কেটে যাওয়ার পরেও এমআরআই থেকে তাকে বের করা হচ্ছে না দেখে ঘরের ভেতরে ঢুকে পড়েন তার স্বামী।

এমআরআই করাতে গিয়ে ঘটল বিপত্তি। এমআরআই মেশিনের ভিতরে দীর্ঘক্ষণ আটকে থাকলেন রোগী। প্রায় দু'ঘণ্টা ধরে রোগী এমআরআই মেশিনের ভিতরে আটকে থাকে। যার জেরে নার্সিংহোম চত্বরে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়। পরে অন্য এক কর্মী সহায়তায় রোগীকে এমআরআই মেশিন থেকে বাইরে বের করা হয়। ঘটনাটি হাওড়া ডোমজুড়ের একটি নার্সিংহোমের।

পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, রোগীর নাম মুমতাজ বেগম। শারীরিক সমস্যার কারণে তিনি গতকাল বিকেলে ওই নার্সিংহোমে এমআরআইয়ের জন্য গিয়েছিলেন। সেখানে যাওয়ার পর তাকে এমআরআইয়ের জন্য ভিতরে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু, দীর্ঘক্ষণ কেটে যাওয়ার পরেও এমআরআই থেকে তাকে বের করা হচ্ছে না দেখে ঘরের ভেতরে ঢুকে পড়েন তার স্বামী। সেখানে দেখতে পান তখনও তার স্ত্রীকে এমআরআই মেশিনের ভিতর রেখে দেওয়া হয়েছে। আর তিনি বেরোনোর জন্য চিৎকার করছেন। পরিবারের অভিযোগ, যে কর্মী এমআরআই মেশিন চালাচ্ছিলেন তিনি প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ছিলেন না। রোগীর শরীর এমআরআই মেশিনের ভিতর থাকায় তাকে বের করাও সম্ভব হচ্ছিল না। অভিযোগ, ওই কর্মী ফোনে অন্য কারও কাছ থেকে শুনে এমআরআই মেশিন চালাচ্ছিলেন।

অন্যদিকে, এমআরআই মেশিনের ভিতরে আটকে থাকায় আতঙ্কে অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই মহিলা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে নার্সিংহোমে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন রোগী পরিবারের সদস্যরা। শেষ পর্যন্ত প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত অন্য এক কর্মীকে ডেকে এনে ওই রোগীকে বাইরে বের করানো হয়। এরপর স্বস্তির নিশ্বাস ফেলে উভয়পক্ষ। যদিও পরিবারের পক্ষ থেকে নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। এই ঘটনায় নার্সিংহোমের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। যদিও নার্সিংহোমের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

বন্ধ করুন