সেদিনের দুর্ঘটনার পর পুলকারটি
সেদিনের দুর্ঘটনার পর পুলকারটি

ঋষভের মৃত্যুতে মুহ্যমান শ্রীরামপুর, ছেলের দেহ বাড়িতে পৌঁছতেই জ্ঞান হারালেন মা

  • এদিন সকাল থেকেই ঋষভের বাড়ির সামনে ভিড় জমতে শুরু করে। বাড়ির ভিতরে বেসামাল অবস্থা তাঁর মায়ের।

শুক্রবার ভোরেই মিলেছিল মন চুরমার করা খবরটা। মৃত্যু হয়েছে পোলবা পুলকার দুর্ঘটনায় নিহত ৬ বছরের ঋষভ সিংয়ের। দুর্ঘটনার ৮ দিন পর কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। এদিন দুপুরে মৃত ঋষভের দেহ শ্রীরামপুরের বেনিয়াপাড়ায় পৌঁছতেই সংজ্ঞা হারালেন বাবা-মা। বাড়ির সামনে আত্মীয়, পরিজন, বন্ধুদের ভিড় থেকে অনবরত শোনা যাচ্ছিল কান্নার শব্দ। শোকাহত গোটা এলাকায় খোলেনি কোনও দোকান।

ঋষভের বাবা সন্তোষ সিং শ্রীরামপুর পুরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি তিনিই ঋষভকে শেখ সামিমের পুলকারে তুলে দিয়ে এসেছিলেন। কিছুক্ষণ পরই আসে দুর্ঘটনার খবর। পড়িমরি সবাই ছোটেন চুঁচুড়া ইমামবাড়া হাসপাতালে। সেখান থেকে ট্রমা কেয়ার অ্যাম্বুলান্সে করে এসএসকেএম-এ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত চরম পরিণতি এড়ানো গেল না।

এদিন সকাল থেকেই ঋষভের বাড়ির সামনে ভিড় জমতে শুরু করে। বাড়ির ভিতরে বেসামাল অবস্থা তাঁর মায়ের। বেলা বাড়তে ময়নাতদন্তের পর বেনিয়াপাড়ার বাড়িতে পৌঁছয় ঋষভের দেহ। কাচের গাড়িতে ছেলের দেহ দেখে জ্ঞান হারান বাবা – মা।

ঋষভের মৃত্যুতে এদিন কালো ব্যাজ পরেন শ্রীরামপুর ওয়ালস হাসপাতালের চিকিত্সক ও চিকিত্সাকর্মীরা। টোটোতে কালো পতাকা বাঁধেন টোটোচালকরা। ঋষভের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আগামী সোমবার হুগলি জেলায় পুলকার পরিষেবা বন্ধ থাকবে বলে জানা গিয়েছে।


বন্ধ করুন