বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Bengaluru: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস ও ভ্রূণহত্যার অভিযোগ, বেঙ্গালুরু থেকে ধৃত যুবক
গ্রেফতার যুবককে। প্রতীকী ছবি।

Bengaluru: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস ও ভ্রূণহত্যার অভিযোগ, বেঙ্গালুরু থেকে ধৃত যুবক

  • পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রদীপ্তর বাড়ি শ্যামপুরের রাধাপুর পুড়ুল পাড়ায়। নাবালিকার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল প্রদীপ্তর। প্রায় বছরখানেক আগে তাদের মধ্যে এই সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল।

নাবালিকাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস এবং ভ্রূণহত্যা করার অভিযোগে হাওড়ার শ্যামপুরের এক সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃত সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারের নাম প্রদীপ্ত ডগর। ওই যুবক বেঙ্গালুরুতে একটি সফটওয়্যার সংস্থায় কর্মরত। গত বৃহস্পতিবার সেখান থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাকে ট্রানজিট রিমান্ডে হাওড়ায় আনা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রদীপ্তর বাড়ি শ্যামপুরের রাধাপুর পুড়ুল পাড়ায়। নাবালিকার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল প্রদীপ্তর। প্রায় বছরখানেক আগে তাদের মধ্যে এই সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল। এরপরে তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস করে প্রদীপ্ত। পরে নাবালিকার সঙ্গে রেজিস্ট্রি ম্যারেজ করে নেয় ওই যুবক। কিন্তু, তার কয়েক মাস পরেই ওই কিশোরী গর্ভবতী হয়ে পড়ে। তাতেই ঘটে বিপত্তি। এই বিষয়টি কিছুতেই মেনে নিতে চায়নি ওই যুবক। বিষয়টি যাতে প্রকাশ্যে না আসে তার জন্য ওই যুবক কিশোরীকে গর্ভপাত করানোর পরামর্শ দেয়। পরে আমতার একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করে তার কিশোরীর গর্ভপাত করানো হয় বলে অভিযোগ। এরপর প্রদীপ্ত বেঙ্গালুরুতে নিজের কর্মস্থলে চলে যায়।

তরুণীর অভিযোগ, তারপর থেকে প্রদীপ্ত আর তার সঙ্গে যোগাযোগ রাখেনি। বিষয়টি কোনওভাবে পরিবারের সদস্যরা জানতে পারে। এরপর পরিবারের সদস্যরা প্রদীপ্তর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেন। কিন্তু, কোনওভাবেই প্রদীপ্তর সঙ্গে তারা যোগাযোগ করতে পারেনি। অবশেষে গত মাসে ওই কিশোরী শ্যামপুর থানায় প্রদীপ্তর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে। বৃহস্পতিবার বেঙ্গালুরু থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ সেখান থেকে রাতেই তাকে শ্যামপুরে নিয়ে আসে। শুক্রবার উলুবেড়িয়া আদালতে তোলা হলে বিচারক ২ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে পকসো মামলায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

বন্ধ করুন