বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পুরুলিয়ায় মাওবাদী পোস্টার কাণ্ডে ধৃত ১৪, জেল হেফাজতের নির্দেশ আদালতের
মাওবাদী অভিযোগে ধৃতদের আদালতে পেশ করা হচ্ছে। নিজস্ব ছবি।

পুরুলিয়ায় মাওবাদী পোস্টার কাণ্ডে ধৃত ১৪, জেল হেফাজতের নির্দেশ আদালতের

গত শুক্রবার আড়ষা ব্লকের অন্তগর্ত চাটুহাসা, মুদালি, সিন্দুরপুর এলাকা থেকে একাধিক মাওবাদী পোস্টার উদ্ধার হয়েছিল।

গত শুক্রবার পুরুলিয়ার আড়ষা ব্লকের অন্তর্গত একাধিক এলাকা থেকে মাওবাদী পোস্টার উদ্ধার হয়েছিল। সেই ঘটনার তদন্তে নেমে ১৪ জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃতদের বিরুদ্ধে পুলিশ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে। শনিবার ধৃতদের পুরুলিয়া জেলা আদালতে তোলা হয়। আদালতে ধৃতদের মাওবাদী দাবি করে পুলিশ নিজেদের হেফাজতে চাইলেও জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

পুলিশ সূত্রে জানা যাচ্ছে, গত শুক্রবার আড়ষা ব্লকের অন্তগর্ত চাটুহাসা, মুদালি, সিন্দুরপুর এলাকা থেকে একাধিক মাওবাদী পোস্টার উদ্ধার হয়েছিল। তাতে মোট ১৩ দফা দাবি জানানো হয়েছিল। পোস্টারে সাদা কাগজের উপর লাল কালিতে এই ১৩ দফা দাবি লেখা হয়েছিল। এমনকি দাবি পূরণ না হলে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছিল এই পোস্টারে। তাতে লেখা ছিল, ‘কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারের কাছে ১৩ দফা দাবি নিয়ে আমরা ফের জঙ্গলমহলে আন্দোলন শুরু করতে চলেছি।’

এই দাবিগুলোর মধ্যে প্রথমে রয়েছে পেট্রোল এবং রান্নার গ্যাসের দাম কমানোর বিষয়টি। এছাড়াও বেকার যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থানের বিষয়টিও তাদের দাবির মধ্যে রয়েছে। পাশাপাশি, ১০০ দিনের প্রকল্পের কাজকে ৩৬৫ দিন করতে হবে বলে দাবি জানানো হয় মাওবাদীদের এই পোস্টারে। একই সঙ্গে তাদের দাবিগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল, ‘পুলিশ প্রশাসনকে কোনও রাজনৈতিক দলের দাস হয়ে কাজ করা যাবে না।’ সেইসঙ্গে মাওবাদীদের চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে আত্মসমর্পণ করানো নিয়ে রাজনীতি করা যাবে না বলেও উল্লেখ করা ছিল এই পোস্টারে।

পুলিশের অনুমান ছিল রাতের অন্ধকারে ওই পোস্টারগুলি লাগানো হয়েছিল। এরপরেই তদন্তে নামে পুলিশ। পোস্টার উদ্ধার হওয়ার দিনই পুলিশ বিভিন্ন এলাকা থেকে ওই ১৪ জনকে গ্রেফতার করে। উল্লেখ্য, এর আগেও ১ মার্চ জঙ্গলমহলে বনধ ডেকেছিল মাওবাদীরা। তার আগে একইভাবে পুরুলিয়া বিভিন্ন এলাকা থেকে মাওবাদী পোস্টার উদ্ধার হয়েছিল।

বন্ধ করুন