বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Titagarh Bomb Blast: টিটাগড় স্কুলে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় গ্রেফতার চার, দফায় দফায় চলছে জেরা
টিটাগড় থানা

Titagarh Bomb Blast: টিটাগড় স্কুলে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় গ্রেফতার চার, দফায় দফায় চলছে জেরা

  • এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজ্য–রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। কেন স্কুল চত্বরে বোমাবাজির হয়েছে? প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এই ঘটনার নেপথ্যে রাজনীতি থাকতে পারে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন সাংসদ অর্জুন সিং। বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। টিটাগড় থানার পুলিশ চারজনকে গ্রেফতার করেছে।

টিটাগড়ে বিস্ফোরণের শিকার হয়েছে স্কুল। তা নিয়ে এখন হাওয়া গরম সেখানে। টিটাগড়ে ক্লাস চলাকালীন স্কুলে বোমা বিস্ফোরণ হয় বলে অভিযোগ। এই স্কুলে বোমাবাজির ঘটনায় গ্রেফতার হয়েছে চারজন। ধৃতদের মধ্যে একজন স্কুলেরই প্রাক্তন ছাত্র বলে দাবি পুলিশের। নিজের স্কুলে কেন বোমাবাজি করল এই প্রাক্তন ছাত্র? তদন্তে নেমেছে পুলিশ। এখানে নমুনা সংগ্রহ করবে ফরেনসিক টিম বলে জানিয়েছেন পুলিশ কমিশনার। শনিবার রাতেই একজনকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। ওই যুবককে জেরা করে আরও তিনজনের নাম উঠে আসতেই আজ, রবিবার সকালেই অভিযান চালিয়ে ওই বাকি তিন যুবককেও গ্রেফতার করেছে টিটাগড় থানার পুলিশ।

ঠিক কী ঘটেছে টিটাগড়ে? স্কুলে বোমা বিস্ফোরণের‌ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে চার যুবককে প্রথমে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। সেখানে এই ঘটনার কথা স্বীকার করতেই চারজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, এই গ্রেফতার হওয়া চার যুবকের নাম মহম্মদ আয়রন, শেখ বাবলু, মহম্মদ সাদিক এবং রোহন। ধৃত যুবকদের প্রত্যেকেরই বয়স ১৮–১৯ বছরের মধ্যে। গ্রেফতার হওয়া ওই চারজন যুবক প্রত্যেকেই স্থানীয়।

ঠিক কী ঘটেছিল টিটাগড়ের স্কুলে?‌ শনিবার দুপুরে টিটাগড়ের একটি স্কুলে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিকট শব্দে কেঁপে উঠেছিল গোটা এলাকা। আতঙ্কের বাতাবরণ তৈরি হয়েছিল ওই স্কুল চত্বরে। ভয়ে দৌড়াতে থাকেন স্থানীয় বাসিন্দারা। যদিও হতাহতের কোনও ঘটনা ঘটেনি। আতঙ্কে পড়ে গিয়েছেন স্কুলের পড়ুয়া এবং অভিভাবকরা। বোমা বিস্ফোরণের সময় স্কুলে ক্লাস চলছিল। ভিতরে ছিল একাধিক পড়ুয়া। তবে কারও কোনও ক্ষতি হয়নি।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজ্য–রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। কীভাবে স্কুলের মধ্যে বোমা এল? কেন স্কুল চত্বরে বোমাবাজির হয়েছে? এইসব প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এই ঘটনার নেপথ্যে রাজনীতি থাকতে পারে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন সাংসদ অর্জুন সিং। আর বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় এই ঘটনায় সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। এবার টিটাগড় থানার পুলিশ চারজনকে গ্রেফতার করেছে।

বন্ধ করুন