বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Sonarpur: টাকা নিয়ে চাকরির প্রতিশ্রুতি! গ্রেফতার হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক

Sonarpur: টাকা নিয়ে চাকরির প্রতিশ্রুতি! গ্রেফতার হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক

প্রতারণার অভিযোগের গ্রেফতার চিকিৎসক ও তার ছেলে। প্রতীকী ছবি

গত কয়েক বছর ধরে তারা বিভিন্ন নেতা মন্ত্রীদের নাম করে এবং সরকারি লোগো ব্যবসার করে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে বহু মানুষের কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকা নিয়েছেন। কারও কাছ থেকে ২ লক্ষ টাকা, আবার কারও কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ।

এসএসসি দুর্নীতিতে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় গ্রেফতার হওয়ার পরেই বিভিন্ন জেলা থেকে নেতা মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে টাকা নেওয়ার অভিযোগ সামনে আসছে। এবার চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠল এক হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। এই অভিযোগে পুলিশ হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক এবং তার ছেলেকে গ্রেফতার করেছে। তাদের নাম উত্তম মুখোপাধ্যায় এবং তার ছেলে অর্ণব মুখোপাধ্যায়। ঘটনাটি দক্ষিণ ২৪ পরগনার রাজপুর সোনারপুর পুরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের বৈকন্ঠপুরের।

তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, গত কয়েক বছর ধরে তারা বিভিন্ন নেতা মন্ত্রীদের নাম করে এবং সরকারি লোগো ব্যবসার করে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে বহু মানুষের কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকা নিয়েছেন। কারও কাছ থেকে ২ লক্ষ টাকা, আবার কারও কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ। গত মঙ্গলবার ওই চিকিৎসকের বৈকণ্ঠপুরের বাড়িতে গিয়ে বিক্ষোভ দেখান প্রতারিত ব্যক্তিরা। এরপরে পুলিশ এসে চিকিৎসক এবং তার ছেলেকে থানায় নিয়ে যায়। পরে অভিযোগের ভিত্তিতে দুজনকে গ্রেফতার করে সোনারপুর থানার পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

প্রতারিত এক ব্যাক্তি জানান, ‘উত্তমবাবু বলেছিলেন এটা মিনিস্টারদের তৈরি করা প্যানেল এবং সবচেয়ে কম টাকায় প্যানেল। সেই বিশ্বাস করে ওনাকে টাকা দিয়েছিলাম। ওনাকে সম্মান করতাম।’ প্রতারিত ব্যাক্তিদের অভিযোগ, বিদ্যুৎ বণ্টন সংস্থা থেকে শুরু করে আরও বিভিন্ন দফতরে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ওই হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক।

যদিও দ্রুত চিকিৎসক দাবি করেছেন তাকে চাকরি দিতে বলা হয়েছিল তাই তিনি টাকা নিয়েছিলেন। এখানেই উঠছে প্রশ্ন উত্তমবাবুকে কে বা কারা চাকরি দিতে বলেছিল। তাহলে সে ক্ষেত্রে কি আরও বড় কোনও মাথা জড়িয়ে রয়েছে? এ নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। তৃণমূলের দাবি, উত্তম এক সময় বিজেপির প্রার্থী হয়েছিলেন। তৃণমূলের সঙ্গে তার কোনও সম্পর্ক নেই। অন্যদিকে, বিজেপির দাবি ওই হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক প্রথমে বিজেপি করলেও পরে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

বন্ধ করুন