বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > হাড়োয়ায় ২১ জুলাইয়ের গুলিচালনায় নবদ্বীপ থেকে গ্রেফতার তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

হাড়োয়ায় ২১ জুলাইয়ের গুলিচালনায় নবদ্বীপ থেকে গ্রেফতার তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি

  • ওই ঘটনার তদন্তে নামে হাড়োয়া থানার পুলিশ। পরদিনই ভাস্কর দাস-সহ ২১ জনকে গ্রেফতার করেন আধিকারিকরা। কিন্তু যজ্ঞেশ্বরের খোঁজ মিলছিল না।

ভেড়ির টাকা একা লুটেপুটে খাওয়ার ছক করেছিলেন। বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল দলেরই বিরোধী গোষ্ঠী। গত ২১ জুলাই তৃণমূলের অনুষ্ঠান শেষে তাই সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে গুলি চালিয়েছিলেন দলেই অপর গোষ্ঠীর সদস্যদের লক্ষ্য করে মৃত্যু হয়েছিল ২ জনের। আহত ১। অবশেষে হাড়োয়ার মোহনপুর অঞ্চলের সভাপতি যজ্ঞেশ্বর প্রামাণিককে গ্রেফতার করল পুলিশ। শুক্রবার রাতে নবদ্বীপ থেকে তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সঙ্গে গ্রেফতার হয়েছেন তাঁর শাগরেদ বিকাশ বরও।

গত ২১ জুলাই তৃণমূলের অনুষ্ঠান সেরে ফিরছিলেন দলের সদস্যরা। তখনই তৃণমূল নেতা ভাস্কর দাসের বাড়ির সামনে দলেরই বিরোধী গোষ্ঠীর সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় যজ্ঞেশ্বর প্রামাণিকের পোষা গুন্ডারা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ৪ জন মিলে অন্তত ৩০ রাউন্ড গুলি চালিয়েছে। গুলিতে মৃত্যু হয় সন্ন্যাসী সর্দার (৩৮) নামে এক যুবকের। ধাক্কাধাক্কিতে মৃত্যু লক্ষ্মীবালা মণ্ডল(৬২) নামে আরও এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়।

ওই ঘটনার তদন্তে নামে হাড়োয়া থানার পুলিশ। পরদিনই ভাস্কর দাস-সহ ২১ জনকে গ্রেফতার করেন আধিকারিকরা। কিন্তু যজ্ঞেশ্বরের খোঁজ মিলছিল না।

হাড়োয়া থানা সূত্রে জানা গিয়েছে, এলাকা দখল নিয়ে দলের গোষ্ঠীকোন্দলেই চলেছে গুলি। এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে এখনো পর্যন্ত ৫টি বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছেন পুলিশকর্মীরা। ধৃতরা প্রায় সবাই তৃণমূলকর্মী বলে জানা গিয়েছে। দলের তরফে জানানো হয়েছে, এই ঘটনায় আইন আইনের পথে চলবে। যারা এই কাজ করেছে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে পদক্ষেপ করবে তৃণমূল।

বন্ধ করুন