বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Domjur murder case: ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ডোমজুড়ে খুনের কিনারা, সুপারি কিলার দিয়েই খুন করিয়েছিল মহিলা!
গতকাল ডোমজুড়ে তাপস খুন হওয়ার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ। নিজস্ব ছবি।

Domjur murder case: ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ডোমজুড়ে খুনের কিনারা, সুপারি কিলার দিয়েই খুন করিয়েছিল মহিলা!

  • আর এর কারণ বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক। তাপসের ছেলের সঙ্গে ওই মহিলার বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল বলেই জানতে পেরেছে পুলিশ। এর ভিত্তিতে পুলিশ ওই মহিলা এবং সুপারি কিলারকে গ্রেফতার করেছে।

ডোমজুড়ে শুট আউটের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কিনারা করল পুলিশ। গতকাল প্রকাশ্য দিবালোকে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করে খুন করা হয়েছিল তাপস দলুই ওরফে কাক তাপসকে। এক সময় এলাকার কুখ্যাত দুষ্কৃতী হিসেবে পরিচিত ছিলেন তাপস। ফলে তার বিপক্ষ গোষ্ঠী তাকে খুন করেছিল বলে প্রাথমিকভাবে মনে করেছিল পুলিশ। তবে তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পেরেছে আসলে তাপসকে সুপার কিলার দিয়ে এক মহিলা করিয়েছিল। আর এর কারণ বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক। তাপসের ছেলের সঙ্গে ওই মহিলার বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল বলেই জানতে পেরেছে পুলিশ। এর ভিত্তিতে পুলিশ ওই মহিলা এবং সুপারি কিলারকে গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই মহিলার সঙ্গে তাপসের ছোট ছেলের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। সেই সূত্রে ওই মহিলার সঙ্গে বেশ কিছু ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি তুলে রেখেছিল তার ছোট ছেলে। আর সেই ছবি দেখিয়ে ওই মহিলাকে ব্ল্যাকমেল করে বেড়াচ্ছিল তাপসের ছোট ছেলে। এ নিয়ে ওই মহিলা তাপসের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিলেন। কিন্তু, ছেলেকে বকাঝকার পরিবর্তে তিনি দলবল নিয়ে ওই মহিলার বাড়িতে গিয়ে হুমকি দিয়েছিলেন। তার প্রতিশোধ নিতেই ওই মহিলা তাপসকে সুপারি কিলার দিয়ে খুন করিয়েছিল বলে অভিযোগ।

উল্লেখ্য, গতকাল সকালে বাজার করতে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল কাক তাপস। স্কুটি নিয়ে মূল রাস্তায় উঠতেই তাকে লক্ষ করে গুলি চালানো হয়। ডোমজুড়ের মাকড়দহ স্টেট ব্যাংকের সামনে তাপসকে লক্ষ করে পাঁচ রাউন্ড গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। তার মধ্যে একটি বুলেট তার মাথায় লাগে। বাকি চারটি শরীর ভেদ করে বেরিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় কাক তাপসের। এরপরই সেই ঘটনার তদন্তে নেমে মহিলা এবং সুপারি কিলারকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বন্ধ করুন