বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > যুবকের ঘুম ভাঙাতে দরজা ভাঙল পুলিশ, বাবার বাড়ি থেকে অস্থির হলেন স্ত্রী!
যুবকের ঘুম ভাঙাতে দরজা ভাঙল পুলিশ, বাবার বাড়ি থেকে অস্থির হলেন স্ত্রী! (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য লাইভ হিন্দুস্তান)
যুবকের ঘুম ভাঙাতে দরজা ভাঙল পুলিশ, বাবার বাড়ি থেকে অস্থির হলেন স্ত্রী! (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য লাইভ হিন্দুস্তান)

যুবকের ঘুম ভাঙাতে দরজা ভাঙল পুলিশ, বাবার বাড়ি থেকে অস্থির হলেন স্ত্রী!

  • এক ব্যক্তি এতটাই গভীর নিদ্রাচ্ছন্ন ছিলেন যে চিৎকার চেঁচামেচি, কলিং বেল, ঘরের দরজায় সজোরে আঘাত সবই ফেল করে গেল। শেষে পুলিশ এসে ঘরের দরজা ভেঙে ঘুম ভাঙায় ওই ব্যক্তির।

ঘুম ভাঙাতে কার্যত ভেঙে ফেলা হল ঘরের দরজা। এরকমই ঘটনা ঘটল চুঁচুড়ার বড়বাজারে। এক ব্যক্তি এতটাই গভীর নিদ্রাচ্ছন্ন ছিলেন যে চিৎকার চেঁচামেচি, কলিং বেল, ঘরের দরজায় সজোরে আঘাত সবই ফেল করে গেল। শেষে পুলিশ এসে ঘরের দরজা ভেঙে ঘুম ভাঙায় ওই ব্যক্তির।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ব্যক্তির নাম সৌমেন নিয়োগী। তিনি রেলের শিয়ালদহ শাখায় কর্মরত। শনিবারের ঘটনা। স্ত্রী'র সঙ্গে চুঁচুড়ার বড় বাজারের বাড়িতে থাকেন তিনি। এর আগের দিন বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য বাবারবাড়িতে গিয়েছিলেন তাঁর স্ত্রী। রাতে এবং সকালে ফোনে তার স্ত্রী'র সঙ্গে কথাও হয়েছিল। কিন্তু বেলা বাড়তেই গভীর নিদ্রায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়েন সৌমেন।

আরও বেশ কয়েকবার ফোন করেন সৌমেনের স্ত্রী। একাধিকবার ফোন করেও স্বামীকে না পেয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন স্ত্রী। চিন্তিত স্ত্রী এরপরে এক প্রতিবেশীকে তিনি ফোন করে স্বামীকে ডেকে দিতে বলেন। এরপরে সৌমেনের বাড়ি গিয়ে ডাকাডাকি শুরু করেন প্রতিবেশীরা। চিৎকার করে ডাকাডাকি থেকে শুরু করে কলিং বেল বাজিয়ে এমনকী সজোরে ঘরের দরজায় ধাক্কা মেরেও সৌমেনকে ডাকাডাকি করেন প্রতিবেশীরা। তারপরেও কোন সাড়া শব্দ না পাওয়ায় প্রতিবেশীদের সন্দেহ হয় তিনি হয়তো মারা গিয়েছেন।

ঘটনায় সন্দেহের গন্ধ পেয়ে প্রতিবেশীরা তখন সরাসরি পুলিশকে বিষয়টি জানায়। পুলিশ এসে ঘরের দরজা ভাঙতে দেখে সৌমেন বাবু বিছানায় শুয়ে রয়েছেন। তাঁর শ্বাস-প্রশ্বাসও চলছে। অবশেষে গায়ে হাত দিয়ে বেশ কয়েকবার ডাকার পর জেগে যান সৌমেন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু আসল ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই সকলে বিস্মিত হয়ে পড়েন। মানুষ যে এরকম ঘুমাতে পারে তার চাক্ষুষ করলেন এলাকাবাসীরা।

বন্ধ করুন