বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ১০ কোটির প্রতারণা! প্রাক্তন মন্ত্রী শ্যামাপ্রসাদের ৬টি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ
শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। ফাইল ছবি
শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

১০ কোটির প্রতারণা! প্রাক্তন মন্ত্রী শ্যামাপ্রসাদের ৬টি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ

  • আয় বহির্ভূত নানা সম্পত্তি, পেট্রল পাম্পেরও হদিশ মিলেছে।

গত ২২ অগস্ট। ১০ কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগ বাঁকুড়া থানার পুলিশ গ্রেফতার করেছিল প্রাক্তন মন্ত্রী শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়কে। বিষ্ণুপুর পুরসভার অফিসার অন স্পেশাল ডিউটি দিলীপ গড়াইকেও গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। এই পুরসভাতেই দীর্ঘদিন চেয়ারম্য়ান ছিলেন শ্যামাপ্রসাদ। পুলিশের দাবি প্রাক্তন মন্ত্রীকে জেরা করেই দিলীপ গড়াইয়ের নাম পাওয়া গিয়েছে। তবে টেন্ডার দুর্নীতিতে আরও কেউ জড়িত কিনা তা পুলিশ খতিয়ে দেখছে। তবে এবার পুলিশি তদন্তে আরও বিপাকে পড়তে চলেছেন প্রাক্তন মন্ত্রী শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়।

পুলিশ সূত্রে খবর, বিধানসভা ভোটের আগে সন্দেহজনক অ্য়াকাউন্টে বিপুল টাকার লেনদেন হয়েছে। কিন্তু কোথা থেকে এই বিপুল টাকা এসেছিল সেকথাই প্রাক্তন মন্ত্রীর কাছ থেকে জানতে চাইছে পুলিশ। অন্যদিকে আয় বহির্ভূত নানা সম্পত্তি, পেট্রল পাম্পেরও হদিশ মিলেছে। সব মিলিয়ে বিধায়কের অন্তত ৬টি ব্যাঙ্ক অ্য়াকাউন্ট ফ্রিজ করা হয়েছে। একাধিক ভুয়ো অ্যাকাউন্টেরও হদিশ পেয়েছে পুলিশ।

 ইতিমধ্যে গোটা ঘটনা নিয়ে পুলিশ প্রাক্তন মন্ত্রীর আত্মীয়দের কাছ থেকেও জানতে চেয়েছে। এদিকে বিগত দিনে কংগ্রেসে ছিলেন শ্যামাপ্রসাদ। পরবর্তী সময়ে তিনি তৃণমূলে আসেন। এরপর বিধানসভা ভোটের আগে তিনি বিজেপিতে ভিড়ে গিয়েছিলেন। এদিকে ভোটে ভরাডুবির পরে তিনি ফের তৃণমূলে আসার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু তাতেও তিনি বিশেষ সুবিধা করতে পারেননি। এদিকে তৃণমূলে থাকাকালীন সারদা মামলাতেও তার নাম জড়িয়েছিল। এবার পুরসভার টেন্ডার দুর্নীতির অভিযোগে সেই শ্যামাপ্রসাদ ধরা পড়েছে পুলিশের জালে। 

 

বন্ধ করুন