বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগে রণক্ষেত্র কোচবিহার, পুলিশ–জনতা খণ্ডযুদ্ধে উত্তেজনা
রাজ্য সড়ক অবরোধ করলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। (নিজস্ব চিত্র )

মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগে রণক্ষেত্র কোচবিহার, পুলিশ–জনতা খণ্ডযুদ্ধে উত্তেজনা

  • তখন কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ। রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় এলাকায়।

এক সপ্তাহ আগে এক মহিলাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছিল। এবার সেই অভিযোগকে কেন্দ্র করে কোচবিহার ১ নম্বর ব্লক কোতয়ালি থানায় নিউ কদমতলায় ধুন্ধুমার কাণ্ড ঘটে গেল। কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হলেও অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ বলে অভিযোগ উঠেছে। কেন এখনও গ্রেফতার করা হল?‌ এবং অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিতে রাজ্য সড়ক অবরোধ করলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এই অবরোধ তুলতে গেলেই পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি শুরু হয়ে যায়। তখন কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ। রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় এলাকায়।

ঠিক কী ঘটেছে কোতোয়ালি এলাকায়?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, এক সপ্তাহ আগে পরিচারিকার কাজ সেরে ফিরছিলেন এলাকার বাসিন্দা এক মহিলা। অভিযোগ, তখন তাঁকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে এলাকার যুবক। এই ঘটনা নিয়ে থানায অভিযোগ করা হলেও এখনও অভিযুক্তকে ধরা হয়নি। তাই আধ ঘন্টা ধরে এই অবরোধ চলে। কোতোয়ালি থানার বিশাল পুলিসবাহিনী এই অবরোধ তুলতে যান। তখন পুলিশের সঙ্গে স্থানীয় বাসিন্দাদের ধস্তাধস্তি হয় এবং পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছো‌ড়া হয়। তখন পুলিস কাঁদানে গ্যাস চালায় এবং লাঠিচার্জ করে।

ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন মহিলার ছেলে। অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। কিন্তু কোনও ব্যবস্থাই নেয়নি পুলিশ। প্রতিবাদে সোমবার কোচবিহার–মাথাভাঙা রাজ্য সড়ক অবরোধ করেন স্থানীয়রা। তার জেরে রাজ্য সড়কে ব্যাপক যানজট তৈরি হয়। তখনই পুলিশ তা তুলতে এলে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়। এই ঘটনায় দু’‌জন পুলিশকর্মী আহত হন। এলাকায় বিশাল পুলিশবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এখন এলাকা থমথমে রয়েছে। ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করেছে কোতয়ালি থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, অবরোধ তুলতে নারাজ থাকে অবরোধকারীরা। বারবার তাঁদের বোঝানো হয়, গোটা ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। কিন্তু তাঁরা তা না শুনে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট, পাথর ছুঁড়তে শুরু করে। তখন কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায় পুলিশ। তাতেই ছত্রভঙ্গ হয় অবরোধকারীরা। নতুন করে কোনও উত্তেজনা তৈরি যাতে না হয় তাই বিশাল পুলিশবাহিনী এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে। চলছে রুটমার্চ।

বন্ধ করুন