বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মেদিনীপুর শহরে রাতে চায়ের দোকান বন্ধের নির্দেশ, শহরে ঘুরছে 'যমরাজ'
করোনা সংক্রমণ বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে (ফাইল ছবি)
করোনা সংক্রমণ বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে (ফাইল ছবি)

মেদিনীপুর শহরে রাতে চায়ের দোকান বন্ধের নির্দেশ, শহরে ঘুরছে 'যমরাজ'

  • মেদিনীপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২২১জন

লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। করোনা সংক্রমণ রুখতে এবার কড়া হচ্ছে মেদিনীপুরের কোতোয়ালি থানার পুলিশ। মূলত চায়ের দোকানের আড্ডা থেকে যাতে সংক্রমণ না ছড়ায় সেজন্যই বিশেষ উদ্যোগ নিচ্ছে পুলিশ। পুলিশ নির্দেশ দিয়েছে, রাত ৯টার পর শহরে কোথাও চায়ের দোকান খোলা রাখা যাবে না। শহরের বিভিন্ন জায়গায় এব্যাপারে অভিযানে নামবে পুলিশ। বিভিন্ন জায়গায় চায়ের দোকানদারদের এব্যাপারে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

 পুলিশ সূত্রে খবর, শহরের বটতলা, নিমতলা, স্কুল বাজার, গান্ধী মোড়, পঞ্চুরচক সহ বিভিন্ন চায়ের দোকানে রাত পর্যন্ত আড্ডা চলে। অনেকের মুখেই মাস্কের কোনও বালাই থাকে না। বর্তমান পরিস্থিতিতে পাশাপাশি বসে আড্ডা দেওয়ার জেরে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কাও থাকে। সেকারণেই চায়ের দোকানগুলি বন্ধের উপর জোর দিয়েছে পুলিশ।

করোনা সতর্কতাবিধি অনেকেই মানছেন না বলেও অভিযোগ। এনিয়েও বিভিন্ন মহলে উদ্বেগ ছড়াচ্ছে। সেকারণে বাসিন্দাদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য অভিনব পথ নিয়েছে পুলিশ। যমরাজ, চিত্রগুপ্ত সেজে বাসিন্দাদের সতর্ক করা হয় এদিন। পাশাপাশি ঝুমুর গান, ছৌ নৃত্যের মাধ্যমেও বাসিন্দাদের কাছে সচেতনতার বার্তা পৌঁছে দেওয়া হয়। বাসের যাত্রীদের একাংশ কেন মাস্ক ব্যবহার করছেন না সেব্যাপারেও এদিন পুলিশ জানতে চায়।

মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার দীনেশ কুমার বলেন.শহর এলাকায় যেখানে রাতে আড্ডা চলে সেই চায়ের দোকানগুলিকে রাত ৯টার পর বন্ধ রাখার জন্য বলা হয়েছে।  নিয়ম ভাঙলে পরবর্তীক্ষেত্রে আইন অনুসারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মানুষকে সচেতন করতে নানা কর্মসূচি নেওয়া হচ্ছে। সকলকে সচেতন হওয়ার ব্যাপারে অনুরোধ করা হচ্ছে।

 

বন্ধ করুন