বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Nadia: পুজোর আগে উদ্ধার দেড় হাজার কেজি নিষিদ্ধ শব্দবাজি, গ্রেফতার ট্রাক চালক
উদ্ধার হওয়া নিষিদ্ধ শব্দবাজি। নিজস্ব ছবি

Nadia: পুজোর আগে উদ্ধার দেড় হাজার কেজি নিষিদ্ধ শব্দবাজি, গ্রেফতার ট্রাক চালক

  • জানা গিয়েছে, একটি ট্রাক দেখে সন্দেহ হয় পুলিশের। ট্রাকটিতে তল্লাশি চালাতেই বেরিয়ে প্রচুর পরিমাণে নিষিদ্ধ শব্দবাজি। পুলিশ জানতে পেরেছে, এই নিষিদ্ধ শব্দবাজি বারাসত থেকে পাচার করা হচ্ছিল আসামে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে বাদকুল্লা থেকে ওই শব্দবাজি ভর্তি ট্রাকটিকে আটক করে। 

সামনেই দুর্গাপুজো। আর তার দিন পনেরো পরেই কালীপুজো। দীপাবলির উৎসবে শব্দবাজির চাহিদা থাকে ব্যাপক। সরকার নিষেধাজ্ঞা জারি করার পরেও এখন থেকেই নিষিদ্ধ শব্দবাজির পাচার শুরু হয়ে গিয়েছে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায়। এবার বিপুল পরিমাণে নিষিদ্ধ শব্দবাজি বাজেয়াপ্ত করল নদিয়ার তাহেরপুর থানার পুলিশ। প্রায় দেড় হাজার কেজিরও বেশি নিষিদ্ধ শব্দবাজি উদ্ধার হয়েছে। সেইসঙ্গে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: আগামী ১ জানুয়ারি পর্যন্ত আতসবাজি নিষিদ্ধ রাজধানীতে

জানা গিয়েছে, একটি ট্রাক দেখে সন্দেহ হয় পুলিশের। ট্রাকটিতে তল্লাশি চালাতেই বেরিয়ে প্রচুর পরিমাণে নিষিদ্ধ শব্দবাজি। পুলিশ জানতে পেরেছে, এই নিষিদ্ধ শব্দবাজি বারাসত থেকে পাচার করা হচ্ছিল আসামে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে বাদকুল্লা থেকে ওই শব্দবাজি ভর্তি ট্রাকটিকে আটক করে। সবমিলিয়ে ট্রাক থেকে উদ্ধার হয়েছে ১৫৬০ কেজি নিষিদ্ধ শব্দবাজি। এই ঘটনায় গাড়ির চালককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বারাসতের কোথায় এই শব্দবাজি তৈরি হয়েছে তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। পাশাপাশি, অসমে কোথায় সেগুলি পাচার হওয়ার কথা ছিল সে তথ্যও জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

এ মাসের প্রথম দিকেই পূর্ব বর্ধমানের কালনা থেকে ১৫০ বস্তা নিষিদ্ধ শব্দবাজি উদ্ধার করেছিল পুলিশ। ট্রাকে করে ওই শব্দবাজি পাচার করা হচ্ছিল। পুলিশের চোখে ধুলো দিতে শব্দবাজির উপরে আলুর বস্তা রাখা হয়েছিল।ওই ট্রাকটি পুরুলিয়ার দিকে যাচ্ছিল। প্রসঙ্গত, পরিবেশের কথা মাথায় রেখে বেশকিছু শব্দবাজির ওপর নিষেধ জারি করেছে জাতীয় পরিবেশ আদালত। তারপরেও পুজোর আগে চলছে নিষিদ্ধ শব্দবাজি পাচার।

বন্ধ করুন