বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > উপনির্বাচনের পরই ফের সংঘর্ষ কোচবিহারে, পঞ্চায়েতের উপপ্রধানকে মারধরের অভিযোগ
তৃণমূল ও বিজেপি–র পতাকা। ফাইল ছবি
তৃণমূল ও বিজেপি–র পতাকা। ফাইল ছবি

উপনির্বাচনের পরই ফের সংঘর্ষ কোচবিহারে, পঞ্চায়েতের উপপ্রধানকে মারধরের অভিযোগ

  • অভিযোগ, তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত পেটলা গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান বণিক রায়কে মারধর করে দুষ্কৃতীরা। ঘটনায় অভিযোগের আঙুল ওঠে বিজেপির দিকে।

কোচবিহারের দিনহাটায় উপনির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে এই কয়েকদিন হল। রেকর্ড ব্যবধানে সেই আসনে জিতেছেন তৃণমূলের প্রার্থী উদয়ন গুহ। তবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিশিথ প্রামাণিকের গড়ে বিজেপির হারে অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির। এই পরিস্থিতিতে ফের রাজনৈতিক সংঘর্ষ বাধল তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে। অভিযোগ, তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত পেটলা গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান বণিক রায়কে মারধর করে দুষ্কৃতীরা। ঘটনায় অভিযোগের আঙুল ওঠে বিজেপির দিকে।

আক্রান্ত বণিক রায়ের অভিযোগ, শনিবার রাতে বাড়ির কাছে ক্লাব থেকে বাড়ি ফেরার সময় তাঁর উপর হামলা হয়। বাইকে করে এসে দুষ্কৃতীরা তাঁর উপর হামলা চালায়। রাস্তার উপর ফেলে তাঁকে মারা হয়। পরে গুরুতর জখম অবস্থায় দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। আপাতত সেখানেই চিকিৎসাধীন আছএন তিনি। বণিক রায়ের অভিযোগ, এই হামলার নেপথ্যে রয়েছেন স্থানীয় বিজেপি কর্মী জয়ন্ত বর্মন।

বণিক রায়ের অভিযোগ, 'গ্রামে বিদ্যুতের খুঁটিতে আলো লাগানো হচ্ছে। সেজন্য ওদের অসুবিধা হচ্ছে। তাই আমার উপর হামলা চালাল।' এর আগেও তাঁর উপর হামলা চালানো হয়েছিল অভিযোগ করেন পঞ্চায়েতের উপপ্রধান। যদিও তৃণমূলের তোলা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের পালটা অভিযোগ, তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরেই এই হামলা। গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব যাতে প্রকাশ্যে না বেরিয়ে আসে, তাই বিজেপির ঘাড়ে দোষ চাপানো হচ্ছে।

বন্ধ করুন