বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাংলায় বিরোধীদের কণ্ঠস্বর দমিত হচ্ছে, উদ্বেগ প্রকাশ অধীরেরও : ধনখড়
জগদীপ ধনখড় এবং অধীর চৌধুরী (টুইটার @jdhankhar1)
জগদীপ ধনখড় এবং অধীর চৌধুরী (টুইটার @jdhankhar1)

বাংলায় বিরোধীদের কণ্ঠস্বর দমিত হচ্ছে, উদ্বেগ প্রকাশ অধীরেরও : ধনখড়

  • সংবিধানের ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের ফলে ভারতীয় জনসংঘের সভাপতি শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় স্বপ্নপূরণ হয়েছে। মন্তব্য রাজ্যপালের।

রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে নিয়মিত তোপ দাগেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। সোমবারও সেই ধারায় ব্যতিক্রম হল না। জানালেন, রাজ্যে বিরোধীদের কণ্ঠস্বর যেভাবে দমিয়ে রাখা হচ্ছে, তাতে তিনি অত্যন্ত ব্যথিত এবং উদ্বিগ্ন।

বিজেপি নেতাদের উপর হামলার অভিযোগ প্রসঙ্গে রাজ্যপাল বলেন, ‘আমি অত্যন্ত বেদনা এবং উদ্বেগের সঙ্গে দেখেছি যে রাজ্যের রাজনৈতিক পরিসর সংকুচিত করছে শাসক দল। এটা গণতান্ত্রিক নীতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। রাজ্য সরকারের কাছে আমার আর্জি, বিরোধীদের কণ্ঠ রাজনৈতিক পরিসর সংকুচিত না করা হয়।’

ধনখড় দাবি করেন, বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা তাঁর দ্বারস্থ হয়েছেন। দিনকয়েক আগে কংগ্রেসের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে রাজভবনে গিয়ে  সাংসদ অধীর চৌধুরীও সেই বিষয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন। রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি এবং আমফানে ত্রাণ বণ্টনের ক্ষেত্রে দুর্নীতি নিয়েও অধীর সরব হয়েছেন বলে জানান ধনখড়। তিনি বলেন, ‘এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সব রাজনৈতিক দলের বর্ষীয়ান নেতারা আমার কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। সম্প্রতি কংগ্রেস নেতা অধীররঞ্জন চৌধুরী আমরা সঙ্গে দেখা করেন এবং এই বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন এবং ঘূর্ণিঝড় আমফানের ত্রাণ বণ্টনে ব্যাপক দুর্নীতি এবং রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি খারাপ হওয়া নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।’

এদিকে, সোমবার রাজভবনে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের ১১৯ তম জন্মবার্ষিকী পালন করেন ধনখড়। তিনি জানান, সংবিধানের ৩৭০ ধারা বিলোপের মাধ্যমে শ্যামাপ্রসাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়েছে। ভারতীয় জনসংঘের সভাপতির স্বপ্নও পূরণ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বন্ধ করুন