বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ডায়মন্ডে পজিটিভিটি রেট আরও কমে ০.৭৯ শতাংশ, উচ্ছ্বসিত অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় । ফাইল ছবি।

ডায়মন্ডে পজিটিভিটি রেট আরও কমে ০.৭৯ শতাংশ, উচ্ছ্বসিত অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

  • অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ১৮,৬০৮ জনের করোনা পরীক্ষা হয়েছে সেখানে করোনা পজিটিভ হয়েছে মাত্র ১৪৭ জন।

করোনা সংক্রমণে লাগাম টানতে নিজের লোকসভা কেন্দ্র ডায়মন্ড হারবারে একগুচ্ছ ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন তৃণমূল সাংসদ তথা দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তার মাত্র দু'সপ্তাহের মধ্যেই হাতেনাতে ফল মিলেছে। পজিটিভিটি রেট এক লাফে ২০ শতাংশ থেকে কমে পৌঁছেছে এক শতাংশে। অভিষেকের মন্ত্রে এক লাফে করোনা সংক্রমণ এলাকায় যেভাবে কমেছে তা নিয়ে তাঁর ভুয়সী প্রশংসা করেছেন দলের অন্যান্য নেতারা।

কুণাল ঘোষ, মানস ভুঁইয়া থেকে শুরু করে দেবাংশু ভট্টাচার্য প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন অভিষেককে। এরইমধ্যে সংক্রমণ আরও কমল ডায়মন্ড হারবারে। ১ শতাংশেরও নিচে নেমে ডায়মন্ড হারবারে পজিটিভিটি রেট হল ০.৭৯ শতাংশে। এনিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন তৃণমূল সাংসদ। নিজের ফেসবুক পেজে ডায়মন্ড হারবারের বাসিন্দাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি মনে করেন, গঙ্গাসাগর এবং কলকাতায় যেভাবে সংক্রমণ বাড়ছে সেখানে এই সমস্ত এলাকার পার্শ্ববর্তী এলাকায় থাকার পরেও ডায়মন্ড হারবারে সংক্রমণ নিম্নমুখী। তা নিয়ে উচ্ছ্বসিত অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। নিজের ফেসবুক পেজে পরিসংখ্যান দিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ১৮,৬০৮ জনের করোনা পরীক্ষা হয়েছে সেখানে করোনা পজিটিভ হয়েছে মাত্র ১৪৭ জন। প্রসঙ্গত, করোনার বাড়বাড়ন্ত রক্ষার জন্য ডক্টরস অন হুইলস সহ বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। যার মাধ্যমে চিকিৎসকরা যেমন বাড়ি বাড়ি গিয়ে করোনা পরীক্ষা করছেন, তেমনিই চিকিৎসাও করছেন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের এইসব উদ্যোগের ফলে ডায়মন্ড হারবারে করোনা সংক্রমণ কমানো সম্ভব হয়েছে বলে মনে করছেন চিকিৎসকদের একাংশ।

বন্ধ করুন