বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > অপরিচ্ছন্ন মেমু নয়, লোকাল ট্রেনের দাবিতে অবরোধ রানাঘাট স্টেশনে
বুধবার রেল অবরোধ।

অপরিচ্ছন্ন মেমু নয়, লোকাল ট্রেনের দাবিতে অবরোধ রানাঘাট স্টেশনে

  • রানাঘাট থেকে ডাউন শিয়ালদহ মেমু ট্রেনে উঠতে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। এমনকী এই ট্রেন লালগোলা থেকে আসায় নোংরা হয়ে থাকে। সেটা পরিষ্কার হয় না বলেও নিত্যযাত্রীদের অভিযোগ। তবে এই রেল অবরোধের জেরে ভোগান্তিতে পড়েন অন্যান্য যাত্রীরা। অবরোধ নিয়ে রেল কিছু জানায়নি।

বুধবার সকালে রেল অবরোধে নাকাল হলেন ট্রেন–যাত্রীরা। কারণ মেমু ট্রেনে কোনও উপকার হচ্ছে না। তাই রানাঘাট–শিয়ালদহ মেন লাইনে লোকাল ট্রেন চালানোর দাবি তোলা হয়েছে। আর এই দাবি তুলে অবরোধ করা হয় রানাঘাট স্টেশন। ফলে আটকে পড়েছে একাধিক ট্রেন। আজ, বুধবার সকাল ৮টা ৩৫ মিনিট থেকে রানাঘাট স্টেশন অবরোধ করেন নিত্যযাত্রীরা।

ঠিক কী দাবি নিত্যযাত্রীদের?‌ নিত্যযাত্রীদের দাবি, রানাঘাট থেকে ডাউন শিয়ালদহ মেমু ট্রেনে উঠতে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। এমনকী এই ট্রেন লালগোলা থেকে আসায় নোংরা হয়ে থাকে। সেটা পরিষ্কার হয় না বলেও নিত্যযাত্রীদের অভিযোগ। তবে এই রেল অবরোধের জেরে ভোগান্তিতে পড়েন অন্যান্য যাত্রীরা। অবরোধ নিয়ে রেল কিছু জানায়নি।

আর কী অভিযোগ নিত্যযাত্রীদের?‌ তাঁদের অভিযোগ, সকালে লালগোলা থেকে যে মেমু ট্রেন আসে তা অত্যন্ত অপরিচ্ছন্ন থাকে। সেটা পরিষ্কার করা হয় না। এমনকী বারবার অভিযোগ জানিয়েও ওই ট্রেন সাফাই হয় না। নিত্য অপরিচ্ছন্ন, দুর্গন্ধ নিয়েই সফর করতে হয়। রেলের উদাসীনতায় যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্য তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে।

কেমন ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে?‌ জানা গিয়েছে, মেমু ট্রেনের বদলে একটি পরিচ্ছন্ন ট্রেনের দাবি করা হয়েছে। ওই ট্রেনটি লোকাল হতে হবে। আর তা রানাঘাট থেকে ছাড়তে হবে। এই দাবিতেই অবরোধ শুরু করেন নিত্যযাত্রীরা। অবরোধের জেরে শিয়ালদহ–রানাঘাট লাইনে আপ–ডাউন দুদিকেই ট্রেন বন্ধ হয়ে যায়। তার জেরেই ভোগান্তিতে পড়তে হয় বাকি যাত্রীদের।

বন্ধ করুন