বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কিশোরী ভাগ্নীকে ধর্ষণ করল দূর–সম্পর্কের মামা, গ্রেফতার দক্ষিণ দিনাজপুরে
ভাগ্নীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল মামার বিরুদ্ধে। (প্রতীকী ছবি)
ভাগ্নীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল মামার বিরুদ্ধে। (প্রতীকী ছবি)

কিশোরী ভাগ্নীকে ধর্ষণ করল দূর–সম্পর্কের মামা, গ্রেফতার দক্ষিণ দিনাজপুরে

  • দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট ব্লকের চিঙ্গিশপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘুঘুডাঙ্গা এলাকায় ১৬ বছরের মানসিক ভারসাম্যহীন ভাগ্নীকে ধর্ষণ করে সে। বাড়ি ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়লে বালুরঘাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তখনই পরিবারকে চিকিৎসকরা ঘটনাটি জানায়।

এবার মানসিক ভারসাম্যহীন ভাগ্নীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল মামার বিরুদ্ধে। এই ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায়। বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার নাম করে মামা ওই ১৬ বছর বয়সি ভাগ্নীকে নির্জন জায়গায় নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে গোটা দিন ধরে। তারপর তাকে নিজের বাড়িতে পৌঁছে দেয়। ভাগ্নী বাড়িতে কিছু বলতে না পারলেও অসুস্থ হয়ে পড়ে। তখনই গোটা ঘটনা প্রকাশ্যে আসে।

ঠিক কী ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুরে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, এই মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরী নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল। পরিবার জানতে পারে মেয়ে বালুরঘাটে একটি গ্রামের দিকে চলে গিয়েছে। তখন তাঁরা ফিরিয়ে আনার তোড়জোড় শুরু করে। এই অবস্থায় দূর–সম্পর্কের মামা দায়িত্ব নিয়ে নেয় ফিরিয়ে আনার। আর ভাগ্নীকে পেয়ে নির্জন জায়গায় নিয়ে গিয়ে সারাদিন ধর্ষণ করে। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট ব্লকের চিঙ্গিশপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘুঘুডাঙ্গা এলাকায় ১৬ বছরের মানসিক ভারসাম্যহীন ভাগ্নীকে ধর্ষণ করে সে। বাড়ি ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়লে বালুরঘাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তখনই পরিবারকে চিকিৎসকরা ঘটনাটি জানায়।

কিভাবে জানাজানি হল বিষয়টি?‌ পুলিশ সূত্রে খবর, দুঃস্থ পরিবারের মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরীকে ধর্ষণ করেছে দূর–সম্পর্কের মামা। ধর্ষণের বিষয়টি বালুরঘাট হাসপাতালের চিকিৎসকরা বুঝতে পেরে বালুরঘাট থানার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। হাসপাতালের পক্ষ থেকে অভিযোগ জানানো হয় পুলিশে। এই অভিযোগের ভিত্তিতে বিশ্বনাথ মাহাতোকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তারপর কী ঘটল সেখানে?‌ এই ঘটনার কথা জানতে পেরে রাতেই বালুরঘাট থানায় আসেন জেলা পুলিশ সুপার রাহুল দে, ডিএসপি হেডকোয়ার্টার সোমনাথ ঝাঁ–সহ অন্যান্য আধিকারিকরা উপস্থিত হন। তাঁরা জেরা করেন ধৃত ব্যক্তিকে। আর বালুরঘাট থানায় অভিযুক্তের নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিতার মা। নির্যাতিতার চিকিৎসা চলছে বালুরঘাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে।

বন্ধ করুন