বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিধ্বস্ত দিঘাকে নতুন করে সাজিয়ে তুলতে জোরকদমে কাজ শুরু জেলা প্রশাসনের
বিধ্বস্ত দিঘাকে নতুন করে সাজিয়ে তুলতে জোরকদমে কাজ শুরু জেলা প্রশাসনের। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
বিধ্বস্ত দিঘাকে নতুন করে সাজিয়ে তুলতে জোরকদমে কাজ শুরু জেলা প্রশাসনের। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

বিধ্বস্ত দিঘাকে নতুন করে সাজিয়ে তুলতে জোরকদমে কাজ শুরু জেলা প্রশাসনের

  • যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ শুরু হয়েছে দিঘা সৈকত এলাকায়।

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসে বিধ্বস্ত হয়ে যাওয়া দিঘাকে সাজিয়ে তুলতে নতুন করে কাজ শুরু করে দিয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের জেলা প্রশাসন।যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ শুরু হয়েছে দিঘা সৈকত এলাকায়।দুদিনের মধ্যে সমুদ্র সৈকতের কাজ জোর কদমে শুরু করে দিয়েছে দিঘা এবং শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদ।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছিলেন, দিঘাকে যত দ্রুত সম্ভব আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে হবে।লক্ষ লক্ষ পর্যটক যাতে এই দিঘায় ফের ঘুরতে আসতে পারেন, সেদিকে কড়া নজর দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।সেই নির্দেশ মতোই দিঘা এবং শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের পক্ষ থেকে জোরকদমে কাজ শুরু করে দেওয়া হয়েছে।নিউ দিঘা থেকে ওল্ড দিঘা পর্যন্ত ছড়িয়ে থাকা বিপুল পরিমাণ পাথর সরিয়ে ফেলা হয়েছে।যে সব জায়গায় সমুদ্র সৈকত এলাকায় রাস্তা ভেঙে গিয়েছে, সেগুলি দ্রুত মেরামত করা হবে বলে জানিয়েছে দিঘা এবং শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদ।ইতিমধ্যে দিঘাকে সুন্দরভাবে সাজিয়ে তুলতে প্রাক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে দায়িত্ব দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। লকডাউনের মধ্যে দিঘাকে যতটা সম্ভব সাজিয়ে তোলা যায়, সেদিকে লক্ষ্য রেখেই প্রশাসনের তরফে কাজ শুরু হয়েছে।

এই প্রসঙ্গে দিঘা শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদের প্রাক্তন চেয়ারম্যান তথা রাজ্যের মৎস্যমন্ত্রী অখিল গিরি জানান,‘‌ইয়াসে যতটা না ক্ষতি হয়েছে, তাঁর দ্বিগুণ ক্ষতি হয়েছে জলোচ্ছ্বাসের কারণে।এই ক্ষয়ক্ষতি সহজে সারানো যাবে না।’‌

বন্ধ করুন