বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Bagtui: দোষীদের ফাঁসি চাইলেন বগটুইয়ে নিহতদের পরিবারের সদস্যরা
বগটুইকাণ্ডে ধ্বংসাবশেষ (ফাইল ছবি, সৌজন্যে পিটিআই)
বগটুইকাণ্ডে ধ্বংসাবশেষ (ফাইল ছবি, সৌজন্যে পিটিআই)

Bagtui: দোষীদের ফাঁসি চাইলেন বগটুইয়ে নিহতদের পরিবারের সদস্যরা

  • নিজের আত্মীয় পরিজনদের হারিয়ে গ্রামের বাসিন্দা শেখলাল জানান, ‘‌স্বজন হারানোর ব্যথা ভুলতে পারছি না। এমন যন্ত্রণা যেন কাউকে সহ্য করতে না হয়।’‌

‌দোষীদের ফাঁসি না হলে খুশির ইদ পালন করবেন না। মঙ্গলবার এই ভাষাতেই ক্ষোভে ফেটে পড়লেন বগটুই অগ্নিকাণ্ডে নিহত পরিবারের সদস্যরা। নিহত পরিবারের সদস্যদের চোখে মুখে এখন শুধুই প্রিয়জনদের হারানোর বেদনা। তাঁদের মতে, যে ধরনের নির্যাতন তাঁদের ওপর চালানো হয়েছে, সেটা যেন ভবিষ্যতে কারও সঙ্গে না হয়।

বীরভূম জেলার বগটুই গ্রাম। কিছুদিন আগে এই গ্রামে নারকীয় হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছিল। এই গ্রামের বাসিন্দাদের ঘরের ভিতর ঢুকিয়ে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছিল। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় একই পরিবারের ৭ জনের মৃত্যু হয়। এরপর মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে হাসপাতালে দু–একজনের মৃত্যু হয়। এই ঘটনার পর গোটা গ্রামে এখন যেন শ্মশানের নিস্তব্ধতা। কিছুদিন আগেই মা আতাহার বিবির মৃত্যু হয়েছে হাসপাতালে। মেয়ে নুরউন্নিসা মায়ের মৃত্যুর কথা বলতে গিয়ে কেঁদেই ফেললেন। চোখের জল মুছতে মুছতে বলে উঠলেন, ‘‌মা ছিল। সবাই ছিল। আগের বার ভালোই ইদ কাটিয়েছিলাম। কিন্তু এবার আর কেউ নেই। বাচ্চাদের মুখের দিকে তাকিয়ে ইদ পালন করছি। কিন্তু কিছুই ইচ্ছা করছে না। আমরা চাই, যারা আমার মাকে মেরেছে, তাঁদের ফাঁসি হোক। ওদের ফাঁসি না হলে আমরা খুশির ইদ পালন করব না।’‌

একই অভিমত পোষণ করেছেন বগটুই কাণ্ডে অন্যান্য নিহত পরিবারের সদস্যরাও। নিজের আত্মীয় পরিজনদের হারিয়ে গ্রামের বাসিন্দা শেখলাল জানান, ‘‌স্বজন হারানোর ব্যথা ভুলতে পারছি না। এমন যন্ত্রণা যেন কাউকে সহ্য করতে না হয়।’‌ চোখের সামনে নিজের পরিবারের লোকজনদের পুড়ে যেতে দেখেছেন তিনি। সেই স্মৃতিচারণ করেই গ্রামের আরেক বাসিন্দা মিহিলাল শেখ জানান, ‘‌চোখের সামনে নিজের পরিবারের লোকজনদের পুড়ে যেতে দেখেছি। ইদ আমরা কীভাবে পালন করব?‌ খুবই দুঃখের মধ্যে ইদ পালন করছি। সব সময় ওই ঘটনাই আমাদের কুড়ে কুড়ে খাচ্ছে।’‌

বন্ধ করুন