বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বদলিতে মারাত্মক দুর্নীতি! বিস্ফোরক চিঠিতে পদত্যাগ তৃণমূলেরই শিক্ষক নেতার
প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলিতে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ইস্তফা  (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলিতে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ইস্তফা  (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

বদলিতে মারাত্মক দুর্নীতি! বিস্ফোরক চিঠিতে পদত্যাগ তৃণমূলেরই শিক্ষক নেতার

  • তাঁর সাফ কথা দুর্নীতিতে মদত দিলে পদোন্নতি আর প্রতিবাদ করলেই দল বিরোধী তকমা লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলি নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ নতুন কিছু নয়। একাধিক জেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে বদলিতে অবৈধ আর্থিক লেনদেনের অভিযোগও উঠেছিল। এমনকী শাসকদলের একাংশের মদতে এই দুর্নীতি চলে বলেও অভিযোগ। তবে সেই বদলির ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা আনতে উৎসশ্রী পোর্টালের ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকার। কিন্তু তারপরেও কি দুর্নীতি কোনও অংশে কমেছে? এবার সেই বদলিতেই দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সংগঠনের প্যাডে চিঠি লিখে পদত্যাগ করলেন তৃণমূলের প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠনের জেলা শীর্ষ নেতা। 

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন অর্ঘ্য চক্রবর্তী নামে ওই শিক্ষক। রাজ্য সভাপতির কাছে চিঠিও পাঠিয়ে দিয়েছেন তিনি। তাঁর সাফ কথা দুর্নীতিতে মদত দিলে পদোন্নতি আর প্রতিবাদ করলেই দল বিরোধী তকমা লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে। তাঁর এই চিঠিকে ঘিরে জোর শোরগোল পড়ে গিয়েছে শাসকদলের শিক্ষক সংগঠনের অন্দরে। অনেকেই বলছেন মৌচাকে ঢিল ছুঁড়ে দিয়েছেন শিক্ষক নেতা। 

ঠিক কী লিখেছেন তিনি চিঠিতে? সূত্রের খবর, তিনি লিখেছেন, ‘পশ্চিমমেদিনীপুর জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের ভুলে ও শিক্ষক শিক্ষিকাদের দোষ না থাকা সত্ত্বেও লক্ষাধিক টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া বা উৎসশ্রী প্রকল্পে চরম দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন করলে দল বিরোধী কাজ করা হয় ও দুর্নীতি করলে প্রমোশন পাওয়া যায় এই ধারনা আমার ছিল না। আমি আগেও বলেছি, আবারও বলছি আমাকে অব্যহতি দিন।' তাঁর দাবি, উৎসশ্রী শুরু হতে না হতেই দুর্নীতি শুরু হয়ে গিয়েছে। কার্যত সেকারনেই তিনি সংগঠনের জেলা সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দেন। 

 

বন্ধ করুন