বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাম হাতে সমস্যা, কেটে বাদ দেওয়া হল ডান হাত, ভুল চিকিৎসার অভিযোগে তদন্ত কমিটি
বাম হাতে সমস্যা, কেটে বাদ দেওয়া হল ডান হাত, ভুল চিকিৎসার অভিযোগে তদন্ত কমিটি গঠন। ছবিটি প্রতীকী।

বাম হাতে সমস্যা, কেটে বাদ দেওয়া হল ডান হাত, ভুল চিকিৎসার অভিযোগে তদন্ত কমিটি

  • নার্সিংহোমের ভুল চিকিৎসার জন্য রেলকর্মীর ডান হাত কেটে বাদ দিতে বাধ্য হলেন চিকিৎসকরা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ায়। অভিযোগ পাওয়ার পরেই ঘটনার তদন্তের জন্য তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক।

চিকিৎসায় চূড়ান্ত গাফিলতির অভিযোগ উঠল খড়গপুরের একটি নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে। সমস্যা ছিল বাম হাতে। কিন্তু, নার্সিংহোমের ভুল চিকিৎসার জন্য রেলকর্মীর ডান হাত কেটে বাদ দিতে বাধ্য হলেন চিকিৎসকরা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ায়। অভিযোগ পাওয়ার পরেই ঘটনার তদন্তের জন্য কমিটি গঠন করেছেন জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক।

রেলকর্মীর নাম সুভাষ দাস। মাস দুয়েক আগে তার বাঁ হাতে প্লেট বসানো হয়েছিল। চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে তিনি প্লেট খোলার জন্য নার্সিংহোমে ভর্তি হন। তারপরেই ঘটে বিপত্তি। পরিবারের অভিযোগ, বাম হাতের প্লেট খোলার কথা থাকলেও চিকিৎসকরা ইনজেকশন দেয় তার ডান হাতে। তারপরেই শারীরিক অবস্থা খারাপ হতে শুরু করে রোগীর। পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তাকে দ্রুত হাওড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। রোগীকে বাঁচাতে বাধ্য হয়ে সেখানকার চিকিৎসকরা ওই রেলকর্মীর ডান হাত কেটে বাদ দেন।

ঘটনার জেরে ওই বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত গাফিলতির অভিযোগ তুলে সুভাষের পরিবার বিভিন্ন দফতরের দ্বারস্থ হন। পুলিশের কাছেও তারা অভিযোগ জানিয়েছেন। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিককে এ বিষয়ে অভিযোগ জানানোর পর তিনি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। এই ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন জলসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী মানস ভুঁইয়া। যদিও নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে চায়নি।

সম্প্রতি এই ধরনের চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠেছিল উত্তর ২৪ পরগনার বারাসাতের সেবায়েত নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে। গাইঘাটার বাসিন্দা অনিতা রায়ের বাম ওভারিতে সিস্ট ধরা পড়েছিল। ফলে তার বাম ওভারিতে অস্ত্রোপচারের কথা ছিল। কিন্তু সে ক্ষেত্রে দেখা যায় নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ তার ডান ওভারির অস্ত্রোপচার করেছে! এরপর অভিযোগ জানিয়ে নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে এবং ক্ষতিপূরণের দাবিতে ক্রেতা সুরক্ষা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে পরিবার।

বন্ধ করুন