বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মাঝরাতে বাড়ির সদস্যদের বেঁধে ডাকাতি, বারুইপুরে লুঠপাট গয়না–টাকা
বারুইপুরে দুঃসাহসিক ডাকাতি।

মাঝরাতে বাড়ির সদস্যদের বেঁধে ডাকাতি, বারুইপুরে লুঠপাট গয়না–টাকা

  • সাতজনের এই ডাকাত দলের হাতে ছিল ধারালো অস্ত্র এবং বন্দুক।

এবার বারুইপুরে দুঃসাহসিক ডাকাতির ঘটনা ঘটল। বৃহস্পতিবার রাত দেড়টা নাগাদ এই গটনাটি ঘটেছে বেতবেড়িয়ার নস্করপাড়ায়। ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে বারুইপুর থানা। তারপরও বেলেগাছি গ্রাম পঞ্চায়েতের বেতবেড়িয়া গ্রামে আগ্নেয়াস্ত্র মাথায় ঠেকিয়ে দুঃসাহসিক ডাকাতি হয়ে গেল। পরিবারের দাবি ৫ লক্ষ টাকা নিয়ে দুষ্কৃতীরা চম্পট দেয়। থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

ঠিক কী ঘটেছে বারুইপুরে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, গৃহকর্তা বাঁশি নস্করের বাড়িতে হানা দেয় ডাকাতদল। তখন বাড়ির চার সদস্যদের হাত, পা ও মুখ বেঁধে ফেলে সশস্ত্র ডাকাত দলটি। তারপর ব্যাপক লুঠপাট চালায় তারা। সাতজনের এই ডাকাত দলের হাতে ছিল ধারালো অস্ত্র এবং বন্দুক। লুঠ হয়েছে প্রায় লক্ষাধিক টাকা। কয়েক লক্ষ টাকার সোনার গহনাও লুঠ করেছে তারা। মূল্যবান সামগ্রী লুট করার পর চম্পট দেয় তারা। তদন্তে নেমেছে বারুইপুর থানার পুলিশ।

পরিবারের ঠিক কী অভিযোগ?‌ পরিবারের সদস্যরা জানান, তাঁরা ঘুমন্ত অবস্থায় ছিলেন। দুষ্কৃতীরা তাঁদের ঘুম ভাঙিয়ে ভয় দেখিয়ে লুটপাট চালায়। হাতে ধারালো অস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র ছিল দুষ্কৃতীদের। সকলের হাত–পা এবং চোখে কাপড় বেঁধে এবং গামছা বেঁধে দুষ্কৃতীরা সোনার গয়না, মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় আতঙ্কে রয়েছেন এলাকাবাসীরাও। প্রশাসন কী পদক্ষেপ করে সেদিকেই তাকিয়ে পরিবার।

পুলিশ সূত্রে খবর, বাড়ি থেকে অন্তত লক্ষাধিক টাকা এবং মূল্যবান সোনার গয়না নিয়ে চম্পট দিয়েছে সেই দুষ্কৃতী দল। ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিশাল পুলিশ বাহিনী। ডাকাত দলের খোঁজ শুরু হয়েছে। যদিও এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। বারুইপুরের এসডিপিও’‌র নেতৃত্বে তদন্তে নামানো হয়েছে একটি বিশাল পুলিশ বাহিনী।

বন্ধ করুন