বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Roro Service in Sundarban: সুন্দরবনে এবার ‘রোরো’ সার্ভিস, বিরাট সুবিধা হবে পর্যটকদের, বড় গাড়িও যাবে দ্বীপে

Roro Service in Sundarban: সুন্দরবনে এবার ‘রোরো’ সার্ভিস, বিরাট সুবিধা হবে পর্যটকদের, বড় গাড়িও যাবে দ্বীপে

সুন্দরবনে এবার রোরো সার্ভিস, বিরাট সুবিধা হবে পর্যটকদের, বড় গাড়িও যাবে দ্বীপে

ছোট ছোট বিচ্ছিন্ন দ্বীপ। বেশ দুর্গম এখনও। সেই দ্বীপে বড় গাড়িও চলে না। তবে এবার সেই সুন্দরবনে চালু হচ্ছে রোরো সার্ভিস। এটা আবার কেমন পরিষবা? জেনে নিন। 

চারপাশে জল দিয়ে ঘেরা। ছোট ছোট দ্বীপ। তার মাঝেই চলে জীবনযাত্রা। বলা ভালো জীবনযুদ্ধ। সুন্দরবনের বহু দ্বীপের সঙ্গে মূল ভূখন্ডের যোগাযোগ এখনও ভালো নয়। তবে এবার সরকারি উদ্যোগে সেখানে রো রো পরিষেবা চালুর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এর মাধ্যমে রো রো জেটি তৈরি করা হবে। কেবলমাত্র ভটভটি নৌকাতে সুন্দরবনের দ্বীপের সঙ্গে মূল ভূখণ্ডের যোগাযোগ নয়। রো রো পরিষেবার মাধ্য়মে বড় গাড়িও সেই দ্বীপে যেতে পারবে। যেতে পারবে অ্যাম্বুল্যান্স। এর জেরে সাধারণ মানুষ উপকৃত হবেন। সেই সঙ্গেই সাধারণ পর্যটক যাঁরা এই সব দ্বীপগুলিতে যেতে চান গাড়ি নিয়ে তাঁদেরও সুবিধা হবে অনেকটাই। 

জেটির সঙ্গে রোরো ভেসেলও দেওয়া হবে। সেই সঙ্গেই ওয়েটিং রুম, টয়লেটের ব্যবস্থাও থাকবে। গোটা ব্যবস্থাটি কীভাবে হবে তা বৃহস্পতিবার খতিয়ে দেখেন রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী। গোসাবার বিভিন্ন এলাকা তিনি সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। কীভাবে কাজগুলিকে দ্রুততার সঙ্গে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে তা তিনি অফিসারদের সঙ্গে আলোচনা করেন। 

পরিবহণমন্ত্রী বলেন, মুখ্য়মন্ত্রী এই সুন্দরবন এলাকায় জলযান পরিষেবাকে আরও উদ্যোগী হওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। গোসাবাতে এসেছি। এখানে পাথরপ্রতিমাতেও রোরো সার্ভিস, রোরো জেটি তৈরির উদ্যোগ নিচ্ছি। এই সব দ্বীপ অঞ্চলের মানুষের সঙ্গে মূল ভূখন্ডের দ্রুত যোগাযোগ বৃদ্ধি পায় সেকারণে নানা উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এতে স্থানীয় বাসিন্দাদের সুবিধা হয়। রোরো সার্ভিস চালু হলে সকলেরই সুবিধা হবে। 

মূলত এই পরিষেবাকে রোল অন রোল অফ অর্থাৎ রো রো সার্ভিস বলে উল্লেখ করা হয়। এই সার্ভিস চালু না করে ওই দ্বীপগুলিতে বড় গাড়ি যেতে পারে না। গোসাবা, পাথরপ্রতিমা সহ সুন্দরবনের অন্যান্য ব্লকগুলিতে হাজার হাজার মানুষ বাস করেন। সবথেকে তাঁদের সমস্যা হয় যে দ্বীপগুলিতে অ্যাম্বুল্যান্স পর্যন্ত চলাচল করতে পারে না। 

এই রো রো সার্ভিস চালু হলে মূল ল্যান্ড থেকে বড় গাড়িকে সহজেই ওই দ্বীপগুলিতে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে। এদিকে গত বছরই রাজ্য সরকার জানিয়েছিল যে এই প্রকল্পের জন্য় অন্তত ৩৫ কোটি টাকা ব্যয় করা হবে। 

এদিকে দ্বীপগুলিতে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো হয়ে গেলে সেখানে আরও বেশি করে পর্যটকরা যাবেন। এতে দ্বীপগুলি আর্থ সামাজিক দিক থেকে আরও উন্নত হবে। কারণ নানা কারণে সব দ্বীপের সঙ্গে কংক্রিটের সেতু তৈরির ক্ষেত্রে পরিবেশগত নানা বাধা রয়েছে। সেক্ষেত্রে বিকল্প বলতে এই রোরো সার্ভিস। 

বাংলার মুখ খবর

Latest News

India Women বনাম United Arab Emirates Women ম্যাচ শুরু হতে চলেছে, পাল্লা ভারি কোন দিকে? হিন্দু মহাকাব্যকে বিকৃত করেছে প্রভাস-দীপিকার ছবি! আইনি জটিলতায় কল্কি ২৮৯৮ এডি কোন দফতরে কত বকেয়া? মমতার দিল্লি সফরে আগেই প্রমাণ সহ রিপোর্ট তৈরির নির্দেশ TMC করায় ক্যানসারের রোগীকে শংসাপত্র না দেওয়ার অভিযোগ, সৌমিত্রকে তোপ আজাদের ডেঙ্গি - ম্যালেরিয়ার দোসর সোয়াইন ফ্লু, বসিরহাটের বাদুড়িয়ায় আক্রান্ত ৩ শুভেন্দুর বাধায় নন্দীগ্রামে বন্ধ ফেরিঘাট, দুর্ভোগে বহু মানুষ, থানায় অভিযোগ একুশের সমাবেশের ভিড়ের মধ্যেই শিয়ালদায় উদ্ধার পরিত্যক্ত ব্যাগ, বোমাতঙ্ক! নিজেকে রাম-এর সঙ্গে তুলনা! বিতর্কের মাঝেই প্রয়াত মায়ের স্মৃতিতে কাতর সোনু সুদ গঙ্গোপাধ্যায় বাড়িতে খুশির হাওয়া!দ্বিতীয়বার বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন স্নেহাশিস একুশে জুলাইয়ের সভায় আমন্ত্রণ পেয়েছেন ছত্রধর মাহাতো, মঞ্চে দেখা যাবে কি?‌

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.