বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > নেতাজির জন্মজয়ন্তী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে চাপ RSS-র, বলছে শিবপুরের অস্থায়ী কর্মীরা

নেতাজির জন্মজয়ন্তী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে চাপ RSS-র, বলছে শিবপুরের অস্থায়ী কর্মীরা

আরএসএসের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার হুমকি। প্রতীকী ছবি। (HT File Photo) (HT_PRINT)

ওই ক্যাম্পাসে আরএসএসের তরফে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানেই অংশগ্রহণ করেছিলেন আইআইইএসটি–র চুক্তিভিত্তিক কর্মীরা। সবমিলিয়ে প্রায় ১৯৫ জন অংশ গ্রহণ করেছিলেন। অভিযোগ, আরএসএসের ইউনিফর্মের জন্য তাদের ৫৫০ টাকা করে দিতে হয়েছে। এদিন মোহন ভাগবতের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য কর্মীরা জমায়েত করেন।

সোমবার নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মজয়ন্তী পালন করেছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ (আরএসএস)। নেতাজির জন্মদিন পালন করা নিয়ে প্রথম থেকেই আরএসএস বিতর্কে জড়িয়েছে। তারই মধ্যে আবারও বিতর্কে জড়াল আরএসএস। এবার আরএসএস আয়োজিত নেতাজির জন্ম দিবস অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য সংঘের ইউনিফর্ম কিনতে বাধ্য করা হল অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া মানুষদের। এমনই অভিযোগ উঠেছে শিবপুরের ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ ইঞ্জিনিয়ারিং সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ক্যাম্পাসে(আইআইইএসটি)।

ওই ক্যাম্পাসে আরএসএসের তরফে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানেই অংশগ্রহণ করেছিলেন আইআইইএসটি–র চুক্তিভিত্তিক কর্মীরা। সবমিলিয়ে প্রায় ১৯৫ জন অংশ গ্রহণ করেছিলেন। অভিযোগ, আরএসএসের ইউনিফর্মের জন্য তাদের ৫৫০ টাকা করে দিতে হয়েছে। এদিন শহীদ মিনারে আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য ইনস্টিটিউটের কর্মীরা সকালে নেতাজি ভবনে জমায়েত করেন। সেখান থেকে দুটি বাসে শহীদ মিনারে পৌঁছন।

চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের অভিযোগ, আইআইইএসটি কর্মচারী কল্যাণ সমিতি তাঁদের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য হুমকি দিয়েছিল। এরপর অনুষ্ঠানে যোগ দিলে তাঁদের আরএসএসের ইউনিফর্ম কিনতে বাধ্য করা হয়। বাদামী ট্রাউজার এবং বেল্ট, সাদা শার্ট এবং কালো টুপির পোশাক তাঁদের পরতে বলা হয়েছিল। এরজন্য ৫৫০ টাকা নেওয়া হয়েছিল বলে অভিযোগ। একজন কর্মী বলেন, ‘আমাদের অসহায় অবস্থার সুযোগ নিয়ে একটি আদর্শ চাপিয়ে দেওয়া অন্যায়। এটা মত প্রকাশের স্বাধীনতার পরিপন্থী।’

তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে শিবপুর কর্মচারী কল্যাণ সমিতি। সমিতির সাধারণ সম্পাদক মলয় গড়াই এই অভিযোগকে মিথ্যা বলে দাবি করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমরা কাউকে এই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বাধ্য করিনি বা হুমকি দিইনি। ১১ জানুয়ারী আমরা অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য আবেদন করেছি। ১৯৫ জন স্বতঃস্ফূর্তভাবে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছিলেন। তাদের মধ্যে স্থায়ী, চুক্তিভিত্তিক এবং আউটসোর্স কর্মচারী ছিলেন। দুপুর ১২টার মধ্যে সব স্টাফ ক্যাম্পাসে ফিরে এসেছে।’

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন