বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > SBSTC bus service: বাসের অস্থায়ী কর্মীদের আন্দোলনের জেরে ব্যাহত SBSTC পরিষেবা, দুর্ভোগে পর্যটকরা
বাসের অস্থায়ী শ্রমিকদের বিক্ষোভ। নিজস্ব ছবি

SBSTC bus service: বাসের অস্থায়ী কর্মীদের আন্দোলনের জেরে ব্যাহত SBSTC পরিষেবা, দুর্ভোগে পর্যটকরা

  • এদিন দক্ষিণ বঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার দিঘা- হলদিয়া ডিপো, হাওড়া গুমটি থেকে অস্থায়ী চালক ও কন্ডাক্টররা বাস চালাতে অস্বীকার করেন। একইভাবে বীরভূমের সিউড়ি, তমলুক, মেদিনীপুর, কাঁথি, ঝাড়গ্রাম সহ ১০ টি ডিপো থেকে এসবিএসটিসির অস্থায়ী কর্মীরাও আন্দোলনে নামেন। 

স্থায়ীকরণ-সহ একাধিক দাবিতে আন্দোলনে নামলেন সরকারি বাসের অস্থায়ী কর্মীরা। যারজেরে দুর্গাপুর, মেদিনীপুর, সিউড়ি, হাওড়া সহ একাধিক ডিপো থেকে বেরোলো না সরকারি বাস। মঙ্গলবার থেকেই আন্দোলন এবং কর্মবিরতি শুরু করেছেন দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার (এসবিএসটিসি) অস্থায়ী বাস কর্মীরা। পুজোর মুখে বাস পরিষেবা ব্যাহত হওয়ার ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন পর্যটকরা।

আরও পড়ুন: দুর্গাপুজোয় সারারাত মিলবে সরকারি বাস, একশো বাস থাকছে জনগণের পরিষেবায়

এদিন দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার দিঘা- হলদিয়া ডিপো, হাওড়া গুমটি থেকে অস্থায়ী চালক ও কন্ডাক্টররা বাস চালাতে অস্বীকার করেন। একইভাবে বীরভূমের সিউড়ি, তমলুক, মেদিনীপুর, কাঁথি, ঝাড়গ্রাম-সহ ১০টি ডিপো থেকে এসবিএসটিসির অস্থায়ী কর্মীরাও আন্দোলনে নামেন। চালকরা পরিষ্কারভাবে জানাচ্ছেন, তারা বাস চালাবেন না। তাদের দাবি, তারা যে বেতন পাচ্ছেন তাতে সংসার চালানো সম্ভব হচ্ছে না। তারওপর সারা মাস কাজ পাচ্ছেন না তারা। তাদের দাবি, কমপক্ষে মাসে ২৬ দিন কাজ দিতে হবে। অস্থায়ী কর্মীচারীদের স্থায়ীকরণের ব্যবস্থাও করতে হবে। এছাড়াও, তাদের যে সমস্ত রুট রয়েছে সেই সমস্ত রুটেই বাস পরিষেবা চালু করতে হবে। এই ধরনের বিভিন্ন দাবিকে সামনে রেখে কর্মীরা বিক্ষোভ করার পাশাপাশি ও কর্ম বিরতি পালন করেন।

দিন কয়েকের মধ্যেই বাঙালির বড় উৎসব দুর্গাপুজো। শারদীয় উৎসবের ছুটিতে অনেকেই সমুদ্রে ঘুরতে যান। তবে কর্মীদের আন্দোলনের জেরে দিঘা-খড়গপুর, দিঘা-বারাসত , দিঘা-দুর্গাপুর রুটে সরকারি বাস পরিষেবা বন্ধ থাকার ফলে সমস্যায় পড়েছেন পর্যটকরা। এই আন্দোলনের পিছনে রয়েছে তৃণমূল পরিচালিত শ্রমিক সংগঠন। তাঁদের হুঁশিয়ারি দাবি মানা না হলে তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন। কাঁথি সাংগঠনিক জেলা-র বিজেপি সভাপতি সুদাম পণ্ডিত এনিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করেছেন। তিনি বলেন, ‘তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠনই আন্দোলনে নেমেছে, এখন কর্মীদের টাকাই দিতে পারছে না রাজ্য সরকার।’

বন্ধ করুন