বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মুর্শিদাবাদে বিজেপিতে বড়সড় ভাঙন, তৃণমূলে যোগ জেলা সম্পাদকের
মুর্শিদাবাদে বিজেপিতে বড়সড় ভাঙ্গন, তৃণমূলে যোগ বিজেপির জেলা সম্পাদকের। প্রতীকী ছবি। (HT_PRINT)
মুর্শিদাবাদে বিজেপিতে বড়সড় ভাঙ্গন, তৃণমূলে যোগ বিজেপির জেলা সম্পাদকের। প্রতীকী ছবি। (HT_PRINT)

মুর্শিদাবাদে বিজেপিতে বড়সড় ভাঙন, তৃণমূলে যোগ জেলা সম্পাদকের

  • বিজেপির জেলার শীর্ষ নেতৃত্ব তৃণমূলে যোগ দেওয়ার ফলে সেখানে তৃণমূলের ঘাঁটি আরও শক্ত হলেও বলে মনে করছে বিশিষ্ট মহল।

বিজেপিতে দলের ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। বিধানসভা নির্বাচনের পরেই শুরু হয়েছিল বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার হিড়িক। পুরভোটের আগেও সেই ধারায় অব্যাহত রয়েছে। এবার ভাঙন দেখা গেল জেলার বিজেপি সংগঠনে। মুর্শিদাবাদের বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক তপন চন্দ্র এবং ডোমকল টাউনের বিজেপি সভাপতি অভিক দাস সোমবার তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

রাজ্যের ৪ পুরনিগমে আগামী ২২ জানুয়ারি ভোট রয়েছে। তারপরে অন্যান্য পুরসভায় ভোট হবে। তবে তার আগে বিজেপির জেলার শীর্ষ নেতৃত্ব তৃণমূলে যোগ দেওয়ার ফলে সেখানে তৃণমূলের ঘাঁটি আরও শক্ত হলেও বলে মনে করছে বিশিষ্ট মহল।

তৃণমূলে যোগ দিয়ে বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক তপন চন্দ্র বলেন, 'বিজেপিতে দলের নেতাদের সম্মান দেওয়া হয় না। সেই কারণে আমি বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছি। তবে গত বিধানসভা ভোটের পরিসংখ্যান খতিয়ে দেখলে দেখা যাবে যে মুর্শিদাবাদের কেন্দ্র বহরমপুর পুরসভাতে বেশিরভাগ আসনেই তৃণমূলের থেকে বিজেপি এগিয়ে ছিল। ফলে আসন্ন পুরসভা নির্বাচনে সেখানে তৃণমূলের আধিপত্য স্থাপন করা যথেষ্ট শক্ত ব্যাপার ছিল। যা উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল বিজেপি নেতাদের। তবে বিজেপির দুই শীর্ষ নেতৃত্ব তৃণমূলে যোগ দেওয়ার ফলে পুরভোটে তার প্রভাব পড়বে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

বিজেপির দুই নেতা এদিন তৃণমূল কংগ্রেসের সাংগঠনিক জেলা সভানেত্রী শাওনি সিংহ রায়ের হাত ধরে তৃণমূলে যোগদান করেছেন। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি একের পর এক বিজেপি নেতা তৃণমূলে যোগদান করেছেন। এরইমধ্যে মুর্শিদাবাদে প্রকাশে এসেছে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল। তবে জেলার দুই শীর্ষ নেতা তৃণমূলে যোগ দেওয়ার ফলে ভোটের অংক কতটা বাড়বে তাই দেখার।

বন্ধ করুন