বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > শেওড়াফুলি করোনা আক্রান্তের জন্য ভয়ে কাঁপছে দুর্গাপুর, বাঁকুড়া
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

শেওড়াফুলি করোনা আক্রান্তের জন্য ভয়ে কাঁপছে দুর্গাপুর, বাঁকুড়া

সংস্থার কর্মীরা জানিয়েছেন, গত ১৩ মার্চ দুর্গাপুরে এসে বাঁকুড়ায় সংস্থার এক কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। রাতে দুর্গাপুর ফিরে এসে সগড়ভাঙায় একটি হোটেলে রাত্রিবাস করেন।

শেওড়াফুলির করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধের জন্য ভয়ে কাঁটা গোদা দুর্গাপুর। রবিবার সন্ধ্যায় ওই ব্যক্তির করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর ছড়াতেই আরও শুনশান হয়ে যায় শিল্পনগরীর পথ-ঘাট। জানা গিয়েছে, দুর্গাপুরের একটি একটি বেসরকারি লোহার রড নির্মাণ কারখানার কর্তা ছিলেন তিনি। সেই সূত্রে নিয়মিত দুর্গাপুরে যাতায়াত ছিল। ফলে তাঁর থেকে কারা আক্রান্ত হয়েছেন তা জানতে কোমর বেঁধে নেমেছে প্রশাসন।

জানা গিয়েছে, ইস্পাতের রড নির্মাণকারী সংস্থার কর্তা ছিলেন ওই ব্যক্তি। মাস কয়েক আগে অবসর গ্রহণ করেছেন তিনি। তবে তার পরেও কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন। গত ১৩ মার্চ শেষ দুর্গাপুরে গিয়েছিলেন তিনি। শ্রীরামপুর থেকে ট্রেনে দুর্গাপুরে যাতায়াত করতে শেওড়াফুলির ওই বাসিন্দা। ফলে তাঁর থেকে ট্রেনেও সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা রয়েছে।

সংস্থার কর্মীরা জানিয়েছেন, গত ১৩ মার্চ দুর্গাপুরে এসে বাঁকুড়ায় সংস্থার এক কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। রাতে দুর্গাপুর ফিরে এসে সগড়ভাঙায় একটি হোটেলে রাত্রিবাস করেন। গত ২৬ মার্চ জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। রবিবার সন্ধ্যায় জানা যায় তিনি করোনাভাইরাস পজিটিভ।

ওই ব্যক্তির কোথা থেকে সংক্রমণ হল এবং তাঁর থেকে কার কার সংক্রমণ ছড়িয়েছে তা জানতে উঠে পড়ে লেগেছে স্বাস্থ্য দফতর ও জেলা প্রশাসন। ১৩ মার্চ কারা তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন তা চিহ্নিত করে তাদের হোম আইসোলেশনে পাঠানোর উদ্যোগ চলছে।

বন্ধ করুন