বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিতর্ক না বাড়িয়ে পূর্ব মেদিনীপুরে পিকে–র নয়া কর্মসূচিতে হাজির শিশির অধিকারী
অনুষ্ঠানে অন্যদের সঙ্গে সাংসদ ও জেলা তৃণমূল সভাপতি শিশির অধিকারী। ছবি সৌজন্য : টুইটার
অনুষ্ঠানে অন্যদের সঙ্গে সাংসদ ও জেলা তৃণমূল সভাপতি শিশির অধিকারী। ছবি সৌজন্য : টুইটার

বিতর্ক না বাড়িয়ে পূর্ব মেদিনীপুরে পিকে–র নয়া কর্মসূচিতে হাজির শিশির অধিকারী

  • শিশির অধিকারী তাঁর বক্তব্যে প্রশান্ত কিশোরের নতুন সব প্রচার–কৌশলকে সমর্থন জানান।

অন্য জেলার মতো পূর্ব মেদিনীপুরেও রাজনীতিবিদ প্রশান্ত কিশোরের বিভিন্ন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে আগে। কিন্তু অভিযোগ, তাতে কখনও একবারের জন্যও সাংসদ ও জেলা তৃণমূল সভাপতি শিশির অধিকারী থেকে মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী–সহ অধিকারী পরিবারের কোনও সদস্যকে দেখা যায়নি। দলের অন্দরে খোঁজ করলে জানা যায়, পূর্ব মেদিনীপুরে তৃণমূলের ঘাঁটি শক্ত করতে ভিনরাজ্যের কোনও ভোটকুশলীকে অধিকারী পরিবারের নাপসন্দ।

এ খবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে স্বাভাবিকভাবেই অস্বস্তিতে পড়ে অধিকারী পরিবার। তাই সেই বিতর্ক দমন করতে রবিবার জেলায় পিকে–র আইপ্যাকের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত ‘ইয়ুথ ইন পলিটিক্স’ কর্মসূচির সূচনায় হাজির থাকলেন সাংসদ ও জেলা তৃণমূল সভাপতি শিশির অধিকারী। এমনই মনে করছে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক মহল। এদিন দলে নবাগত ১৪৪ জনের হাতে তৃণমূলের পতাকা তুলে দিয়েছেন জেলা সভাপতি।

রবিবার বিকেলে কাঁথিতে জেলা পর্যায়ে দলের এই কর্মসূচির সূচনায় জেলা তৃণমূল সভাপতি শিশির অধিকারী তাঁর বক্তব্যে প্রশান্ত কিশোরের নতুন সব প্রচার–কৌশলকে সমর্থন জানান। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভূয়সী প্রশংসাও করেন। যদিও কর্মসূচিতে অনুপস্থিত তাঁর ছেলে তথা রাজ্যের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর প্রসঙ্গে এদিন কিছু বলেননি শিশিরবাবু।

তিনি এদিন বলেন, ‘প্রশান্ত কিশোরের টিমের লোকজন মানুষের মনের কথা বোঝার চেষ্টা করছে এবং সে সব কথা আমাদের জানাচ্ছে। তাতে আমরাও সেই মত এগোতে পারছি। দলের সব কর্মসূচিতে আমরা আগেও ছিলাম। এই নতুন ভাবনায় থাকব নাই বা কেন!’‌

বন্ধ করুন