বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Industry in Singur: সিঙ্গুরে শিল্প গড়তে উদ্যোগী ১০ টি সংস্থা, রাজ্যের কাছে জানাল আবেদন

Industry in Singur: সিঙ্গুরে শিল্প গড়তে উদ্যোগী ১০ টি সংস্থা, রাজ্যের কাছে জানাল আবেদন

সিঙ্গুরের জমিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার)

৬.৩২ জমি একর জমিতে এই শিল্পতালুক করার পরিকল্পনা রয়েছে। সেখানে বিনিয়োগ আসবে বলেই মনে করছে রাজ্য সরকার। গতকাল শিল্পদ্যোগীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প দফতরের সচিব রাজেশ পাণ্ডে। রাজ্যে মোট ৪৫৬ একর জমিতে ১৩ টি জেলায় ৩২ টি জমিতে শিল্পপার্ক করা হবে বলে গতকাল বৈঠকে বিষয়টি উঠে এসেছে।

বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বার বার রাজ্যে শিল্প আনার উপর জোর দিয়েছেন। কিন্তু, সিঙ্গুর থেকে টাটা চলে যাওয়ার পর শিল্পপতিরা সেখানে আর ফিরে আসবেন কিনা তা বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছিল রাজ্যের কাছে। এ নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল বিরোধী মহল থেকে। তবে সেই চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করে সিঙ্গুরে শিল্প গড়তে উদ্যোগী হল ১০টি নতুন সংস্থা। এই সংস্থাগুলি সিঙ্গুরে শিল্প গড়ার জন্য রাজ্যের কাছে আবেদন জানিয়েছে।

নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, সেখানে শিল্পতালুক করা হবে। ৬.৩২ জমি একর জমিতে এই শিল্পতালুক করার পরিকল্পনা রয়েছে। সেখানে বিনিয়োগ আসবে বলেই মনে করছে রাজ্য সরকার। গতকাল শিল্পদ্যোগীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প দফতরের সচিব রাজেশ পাণ্ডে। রাজ্যে মোট ৪৫৬ একর জমিতে ১৩ টি জেলায় ৩২ টি জমিতে শিল্পপার্ক করা হবে বলে গতকাল বৈঠকে বিষয়টি উঠে এসেছে। সে ক্ষেত্রে প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ হতে পারে বলে মনে করছে রাজ্য সরকার।

একাধিক শিল্প সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী বারবার শিল্পপতিদের বিনিয়োগ করার বিষয়ে আশ্বস্ত করেছেন। রাজ্যে ল্যান্ড ব্যাঙ্ক থাকার পাশাপাশি শ্রমিকের অভাব না হওয়া, উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা রয়েছে বলেই শিল্পপতিদের আশ্বস্ত করে রাজ্যে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তারপরও শিল্পপতিরা রাজ্যে বিনিয়োগ করতে সেভাবে উৎসাহ দেখাননি। এরপর গত তিনজন কাঠমান্ডুতে গিয়ে ফের রাজ্যে শিল্পপতিদের বিনিয়োগের আহ্বান জানান। সেখানে সিঙ্গুর প্রসঙ্গে বলেন, সিঙ্গুরের উন্নয়নের জন্য রাজ্য সরকার চেষ্টা করছে। এছাড়া সেখানে কৃষিভিত্তিক শিল্পের কথাও ভাবা হচ্ছে। এই অবস্থায় ১০ টি সংস্থা সেখানে শিল্প করতে চেয়ে আবেদন করার ফলে আগামী দিনের রাজ্যে বিনিয়োগ আরও বাড়বে বলে মনে করছে সরকার।

বন্ধ করুন