প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

ভুয়ো পরিচয় দিয়ে বাবাকে হাসপাতালে রেখে পালাল ছেলে, মৃত্যুর পরও দেখা নেই তার

  • ভর্তির সময় নিজেদের ব্যাঙ্ক ম্যানেজার বলে পরিচয় দেন তাঁরা। এর পর থেকে মাত্র একবার বাবাকে দেখতে নার্সিং হোমে এসেছিলেন ছেলে।

নিজেকে ব্যাঙ্ক ম্যানেজার পরিচয় দিয়ে বাবাকে হাসপাতালে ভর্তি করে বেপাত্তা ছেলে। বাবার মৃত্যুর পরও দেখা নেই তার। অমানবিক এক প্রতারকের খপ্পরে পড়ে দিশাহারা বর্ধমানের বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সমস্যা সমাধানে জেলা শাসকের দ্বারস্থ হয়েছেন তাঁরা।

গত ৩০ ডিসেম্বর বর্ধমানের জিটি রোডের পাশে একটি বেসরকারি হাসপাতালে বৃদ্ধ নিশীথ সরকারকে ভর্তি করান ছেলে বিজয় সরকার ও তাঁর স্ত্রী। ভর্তির সময় নিজেদের ব্যাঙ্ক ম্যানেজার বলে পরিচয় দেন তাঁরা। এর পর থেকে মাত্র একবার বাবাকে দেখতে নার্সিং হোমে এসেছিলেন ছেলে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, সেই যে নার্সিং হোম ছেড়েছেন বিজয়বাবু আর ফোনে পাওয়া যায়নি তাঁকে।

এরই মধ্যে নিশীথবাবুর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। তাঁকে ভেন্টিলেশনে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বুধবার সকালে মৃত্যু হয় বৃদ্ধর। কিন্তু তার পরও দেখা নেই ছেলে বউমার।

খোঁজ খবর করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানতে পারে বিজয়বাবু বর্ধমান শহরে যে ঠিকানা দিয়েছিলেন সেটি ভুয়ো। গ্রামের বাড়ির ঠিকানাটিও ভুয়ো। স্থানীয়রা জানাচ্ছেন, বিভিন্ন মানুষের কাছে নিজেকে ব্যাঙ্ক ম্যানেজার বলে পরিচয় দিত ওই ব্যক্তি।

আতান্তরে পড়ে বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতীর দ্বারস্থ হয়েছেন হাসপালের মালিক শেখ আলহাজউদ্দিন। আপাতত দেহ সরকারি মর্গে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন জেলাশাসক। বৃদ্ধের আত্মীয়দের খোঁজ চলছে।

বন্ধ করুন