বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > স্টেশনেই দেওয়া হবে করোনা টিকা, উদ্যোগ দক্ষিণ ২৪ পরগনার এই পুরসভার
ভ্যাকসিন নিতে গিয়ে সিভিসি নম্বর দেখে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ফিরহাদ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
ভ্যাকসিন নিতে গিয়ে সিভিসি নম্বর দেখে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ফিরহাদ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

স্টেশনেই দেওয়া হবে করোনা টিকা, উদ্যোগ দক্ষিণ ২৪ পরগনার এই পুরসভার

এবার রেল স্টেশনেও করোনার ভ্যাকসিন দেওয়ার ভাবনা পুর প্রশাসনের।

এবার রেল স্টেশনেও করোনার ভ্যাকসিন দেওয়ার ভাবনা পুর প্রশাসনের। সোনারপুর–রাজপুর পুরসভার অধীনস্থ চারটি রেল স্টেশন রয়েছে। এই ৪টি স্টেশনে রেলযাত্রীদের টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করবে সোনারপুর–রাজপুর পুরসভা। আগামী শনিবার থেকে এই টিকাকরণ প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে পুর প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে।|

সোনারপুর–রাজপুর পুরসভা অধীনে যে ৪টি স্টেশন রয়েছে, সেগুলি হল গড়িয়া, নরেন্দ্রপুর, সোনারপুর ও সুভাষগ্রাম। পুর প্রশাসন সূত্রে খবর, এই ৪টি স্টেশনের মধ্যে প্রতিদিন ২টি করে স্টেশনে করোনার টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করবে প্রশাসন। প্রাথমিকভাবে প্রতি স্টেশনে ৫০ জন করে মোট ১০০ জনকে দিনে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। পরে চাহিদা বাড়লে সেই সংখ্যাও বাড়ানো হবে বলে প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে।

এই প্রসঙ্গে স্থানীয় মহকুমা শাসক সুমন পোদ্দার বলেন, ‘‌সোনারপুর–রাজপুর এলাকার প্রতিটি স্টেশনে যারা যাতায়াত করেন, তাঁদের মধ্যে অনেকেই সুপার স্প্রেডার। কাজের জন্য সময় না পাওয়ায় অনেকেই ভ্যাকসিন নিতে পারেননি। তাই এদের জন্য স্টেশন চত্বরেই ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সকালে কাজে যাওয়ার সময়ে তাঁদের হাতে কুপন দিয়ে দেওয়া হবে। রাতে কাজ থেকে ফেরার পথে তাঁদের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।’‌ একইসঙ্গে তিনি জানান, ১৮ থেকে ৪৫ বছর বয়সিদের জন্য এই টিকাকরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ভ্যাকসিন নেওয়াকে কেন্দ্র করে যাতে কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি না হয়, তার জন্য সোনারপুর ও রাজপুর থানাকে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখতে বলা হয়েছে। ইতিমধ্যে পুর প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, তাঁদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভ্যাকসিন এসে পৌঁছেছে। তাঁরা ভ্যাকসিন দিতে প্রস্তুত।

বন্ধ করুন