বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > অভিষেকের পথে হেঁটেই করোনা আবহে জমায়েত বন্ধ রাখার বার্তা সেচমন্ত্রীর
সৌমেন মহাপাত্র। ফাইল ছবি সৌজন্যে ফেসবুক।
সৌমেন মহাপাত্র। ফাইল ছবি সৌজন্যে ফেসবুক।

অভিষেকের পথে হেঁটেই করোনা আবহে জমায়েত বন্ধ রাখার বার্তা সেচমন্ত্রীর

  • এ নিয়ে দলের নেতাকর্মী এবং সাধারণ মানুষদের অনুরোধ করে একটি ফেসবুক পোস্ট করেছেন মন্ত্রী।

রাজ্যে প্রতিদিন করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী। সেই কথা মাথায় রেখেই এবার তৃণমূল সংসদ তথা দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জীর দেখানো পথকেই সঠিক বলে মনে করছেন রাজ্যের সেচ মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র। তিনি জমায়েত, মিটিং-মিছিল, আচার-অনুষ্ঠান বন্ধের আর্জি জানালেন।

এ নিয়ে দলের নেতাকর্মী এবং সাধারণ মানুষদের অনুরোধ করে একটি ফেসবুক পোস্ট করেছেন মন্ত্রী। সেখানে তিনি লিখেছেন, 'তমলুক বিধানসভার সমস্ত তৃণমূল কংগ্রেস সৈনিকদের অনুরোধ করা যাচ্ছে, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসা না পর্যন্ত সমস্ত জমায়েত, মিটিং-মিছিল, আচার-অনুষ্ঠান বন্ধ রাখলে বিধায়ক হিসেবে আমি কৃতজ্ঞ থাকব।'

কিছুদিন আগেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় মিটিং-মিছিল, জমায়েত বন্ধের পাশাপাশি পুরভোট বন্ধ রাখা উচিৎ বলেও ব্যক্তিগত মতামত জানিয়েছিলেন। চিকিৎসক থেকে শুরু করে বিভিন্ন মহলে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এ নিয়ে প্রশংসা পেলেও অবশ্য এ নিয়ে বিরোধীরা তাকে খোঁচা দিতে ছাড়েননি।

রাজ্যে করোনা সংক্রমণে কলকাতা এগিয়ে থাকলেও মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্রর জেলা পশ্চিম মেদিনীপুরেও করোনা সংক্রমণ উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। যার ফলে উদ্বেগ বাড়ছে রাজ্যের সেচ মন্ত্রীর। এই অবস্থায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পথে হেঁটে সেচ মন্ত্রীর এই বার্তার প্রশংসা করছেন চিকিৎসকদের একাংশ।

অন্যদিকে, সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা করোনা আক্রান্ত হলে তাদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করে শুভেচ্ছাবার্তা পাঠাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলের ঝুড়ি আর হেলথ ড্রিংকস পাঠাচ্ছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর ভূয়শী প্রশংসা করে সৌমেন মহাপাত্র নিজের ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, 'করোনা সংক্রামিতদের দ্রুত সেরে ওঠার জন্য ফল খাওয়া জরুরি, সেই কথা মাথায় রেখেই শুভেচ্ছা বার্তা লেখা কার্ড এবং ফলের ঝুড়ি পাঠাচ্ছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।'

বন্ধ করুন