বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বড়সড় বিপদ থেকে রক্ষা ট্রেনের, কুলপিতে প্রহরীবিহীন লেভেল ক্রসিংয়ে ভ্যানে ধাক্কা
বড়সড় বিপদ থেকে রক্ষা ট্রেনের, কুলপিতে প্রহরীবিহীন লেভেল ক্রসিংয়ে ভ্যানে ধাক্কা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
বড়সড় বিপদ থেকে রক্ষা ট্রেনের, কুলপিতে প্রহরীবিহীন লেভেল ক্রসিংয়ে ভ্যানে ধাক্কা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

বড়সড় বিপদ থেকে রক্ষা ট্রেনের, কুলপিতে প্রহরীবিহীন লেভেল ক্রসিংয়ে ভ্যানে ধাক্কা

  • চরম হয়রানির মুখে পড়েন অফিস-ফেরত যাত্রীরা।

প্রহরাবিহীন লেভেল ক্রসিং পার হতে গিয়ে লাইনে আটকে গিয়েছিল ভ্যান। তাতে ধাক্কা মারল লোকাল ট্রেন। ভেঙে যায় ট্রেনের সামনের দিকে অংশ। ধোঁয়াও বেরোতে থাকে। তার জেরে সাড়ে প্রায় চার ঘণ্টা শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার নামখানা-লক্ষীকান্তপুর লাইনে বন্ধ থাকে ট্রেন চলাচল। তার জেরে চূড়ান্ত হয়রানির মুখে পড়তে হয় যাত্রীদের।

সোমবার বিকেলে ৫ টা ৪৫ মিনিট কাকদ্বীপ থেকে একটি লোকাল ট্রেন শিয়ালদহের উদ্দেশে রওনা দেয়। ট্রেনের যাত্রাপথে করঞ্জলি ও কুলপি স্টেশনের মধ্যে রামকৃষ্ণপুরে একটি প্রহরাবিহীন লেভেল ক্রসিং আছে। সেই লেভেল ক্রসিং পার হওয়ার সময় লাইনে আটকে যায় একটি ইঞ্জিন চালিত ভ্যান। চালক চেষ্টা করলেও ভ্যান সরিয়ে নিয়ে যেতে ব্যর্থ হন। তারইমধ্যে দ্রুত গতিতে ট্রেন এগিয়ে আসায় আতঙ্কে ভ্যান ফেলেই চালক পালিয়ে যান। সরাসরি ভ্যানে ধাক্কা মারে ট্রেনটি। 

ধাক্কার অভিঘাত এতটাই তীব্র ছিল যে দু'টুকরো হয়ে যায় ইমারতি দ্রব্য বোঝাই ভ্যানটি। ট্রেনের সামনের দিকে অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ভেঙে যায় ক্যাটল। ট্রেন থেকে ধোঁয়া উঠতে থাকে। তার জেরে যাত্রীদের মধ্যে রীতিমতো আতঙ্ক তৈরি হয়। তবে বড়সড় দুর্ঘটনার থেকে রক্ষা পায় লোকাল ট্রেনটি। লাইনেই ট্রেন আটকে পড়ে। দুর্ঘটনার পর কিছুক্ষণ পরে সেখানে আসেন রেলের কর্মীরা। ট্রেন সরানোর চেষ্টা করতে থাকেন তাঁরা। পৌঁছায় রেলপুলিশ। শেষপর্যন্ত রাতের দিকে ট্রেনটি সরানো হয়। সিঙ্গল লাইন হওয়ায় সাড়ে চার ঘণ্টার মতো নামখানা-লক্ষীকান্তপুর লাইনে ব্যাহত হয় ট্রেন চলাচল। সপ্তাহের প্রথম কাজের দিনেই চরম হয়রানির মুখে পড়েন অফিস-ফেরত যাত্রীরা।

বন্ধ করুন