বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > SSC Recruitment Scam: স্কুলের চাকরি থেকে বরখাস্ত মন্ত্রী পরেশের মেয়ে অঙ্কিতা, পুরো বেতন ফেরতের নির্দেশ হাইকোর্টের
পরেশ অধিকারী এবং অঙ্কিতা অধিকারী। (ফাইল ছবি)

SSC Recruitment Scam: স্কুলের চাকরি থেকে বরখাস্ত মন্ত্রী পরেশের মেয়ে অঙ্কিতা, পুরো বেতন ফেরতের নির্দেশ হাইকোর্টের

  • SSC Recruitment Scam: অঙ্কের নিয়ম উলটে ৬১>৭৭ হল না। বরং সাধারণ নিয়ম মেনে ৭৭>৬১ হল। সেই পরিস্থিতিতে রাজ্যের শিক্ষা দফতরের প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর ‘শিক্ষিকা’ মেয়ে অঙ্কিতাকে (Paresh and Ankita Adhikary) চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হল।

শিক্ষকতার চাকরি থেকে অঙ্কিতা অধিকারীকে বরখাস্তের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। স্কুলের শিক্ষক হিসেবে মন্ত্রী পরেশ অধিকারীর মেয়ে এতদিন যে বেতন পেয়েছেন, তার পুরোটা ফেরত দেওয়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দু'দফায় সেই অর্থ হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের কাছে জমা দিতে হবে।

আরও পড়ুন: অঙ্কিতা কোথায়? কেন তার বিরুদ্ধে এখনো কোনও পদক্ষেপ করেনি SSC?: হাইকোর্ট

শুক্রবার বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, শিক্ষক হিসেবে পরিচয় দিতে পারবেন না মন্ত্রীর মেয়ে অঙ্কিতা। কোচবিহারের যে ইন্দিরা উচ্চ বিদ্যালয়ে 'শিক্ষকতা' করতেন, সেই স্কুলে ঢুকতে না দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। সঙ্গে হাইকোর্টের নির্দেশ, স্কুলে ‘শিক্ষকতার’ জন্য ৪১ মাস যে বেতন পেয়েছেন অঙ্কিতা, তার পুরোটা দুটি কিস্তিতে ফেরত দিতে হবে। প্রথম কিস্তির অর্থ জমা দিতে হবে আগামী ৭ জুনের মধ্যে। দ্বিতীয় কিস্তির টাকা আগামী ৭ জুলাইয়ের মধ্যে জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

উল্লেখ্য, স্কুল সার্ভিস কমিশনের (এসএসসি) মাধ্য়মে একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির রাষ্ট্রবিজ্ঞান শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে পরেশের বিরুদ্ধে প্রভাব খাটানোর অভিযোগ ওঠে। চাকরিপ্রার্থীদের দাবি, তফসিলি প্রার্থীদের প্রথম মেধাতালিকায় প্রথম ২০-তে ছিলেন না অঙ্কিতা। কিন্তু ২০১৭ সালের নভেম্বর দ্বিতীয় তালিকায় একেবারে 'টপার' হয়ে যান মন্ত্রীর মেয়ে। প্রথম তালিকায় ২০ নম্বর স্থানে থাকা ববিতা সরকার মামলা করেন। দ্বিতীয় তালিকায় ২১ নম্বরে নেমে যান। তার ফলে চাকরি পাননি।

সেই মামলায় চলতি সপ্তাহে হাইকোর্টে কমিশনের তরফে জানানো হয়, ৬১ নম্বর পেয়েছিলেন 'টপার' অঙ্কিতা। সেখানে দ্বিতীয় মেধাতালিকায় ২১ নম্বরে থাকা ববিতা পেয়েছিলেন ৭৭। কমিশন কার্যত সরাসরি বলেই দেয় যে অঙ্কিতা পার্সোনালিটি টেস্টেও বসেননি। সেই পরিস্থিতিতে পরেশকে সিবিআইয়ের কাছে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। কয়েক ঘণ্টা ‘ভ্যানিশ’ থাকার পর অবশেষে বৃহস্পতিবার সিবিআইয়ের কাছে যান পরেশ। আজও সকালে সিবিআইয়ের জিজ্ঞাসাবাদ মুখে পড়েছেন মন্ত্রী। আর মন্ত্রী যখন সিবিআইয়ের প্রশ্নের মুখে পড়েছেন, তখন তাঁর মেয়েকে চাকরি থেকে বরখাস্তের নির্দেশ দিল হাইকোর্ট।

বন্ধ করুন