বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মাকে অত্যাচারের প্রতিবাদ কিশোরের, বীরভূমে এলোপাথারি কোপাল সৎবাবা
এলোপাথারি ছুরি দিয়ে কোপায় সৎবাবা। (ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
এলোপাথারি ছুরি দিয়ে কোপায় সৎবাবা। (ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

মাকে অত্যাচারের প্রতিবাদ কিশোরের, বীরভূমে এলোপাথারি কোপাল সৎবাবা

  • এই ঘটনা যখন ঘটছে তখন স্থানীয় এক যুবক দেখতে পেয়ে চিৎকার করতেই পালিয়ে যায় সৎবাবা। পরে পুলিশ এসে সুকুরকে খুঁজে বের করে এবং গ্রেফতার করে। তখন কিশোরকে দুবরাজপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রতিবেশীদের সূত্রে খবর, স্ত্রীকে মারধর করতেন সুকুর। এবার এই ঘটনা।

মায়ের উপর অত্যাচার করত সৎবাবা। আর তা দিনের পর দিন সহ্য করত ১২ বছরের কিশোর। কিন্তু তা বেশিদিন সহ্য করতে পারেনি কিশোর মন। তাই প্রতিবাদ করে রুখে দাঁড়ায় কিশোর বালক। পরে বাবা–মায়ের বিচ্ছেদও হয়। তখন মায়ের সঙ্গে আলাদা বাড়িতে ভাড়া থাকতে শুরু করে সে। বৃহস্পতিবার তাকে একা পায় ওই সৎবাবা। তখন এলোপাথারি ছুরি দিয়ে কোপায় সৎবাবা বলে অভিযোগ। এই সৎবাবা আবার সম্পর্কে কাকাও।

ঠিক কী ঘটেছে দুবরাজপুরে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, এই ঘটনায় মারাত্মক জখম হয়েছে ওই কিশোর। তাকে দুবরাজপুরের হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে। খুনের চেষ্টার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে সৎবাবাকে। অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম সুকুর শেখ। ১২ বছরের ওই কিশোর সুকুরের নিজের সন্তান নয়। তার মায়ের স্বামী এবং সম্পর্কে ছেলেটির আপন কাকা। এই কাকাকেই বিয়ে করেছিলেন তার মা।

পুলিশ কী জানতে পেরেছে?‌ এই কিশোরের আপন বাবা মারা যাওয়ার পর মা কিশোরের আপন কাকাকে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু দিনের পর দিন মা ও ছেলের উপর অত্যাচার বাড়তে থাকে। তখন প্রতিবাদে গর্জে উঠেছিল কিশোর। পরে এই সৎবাবা ও মায়ের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। আজ ওই কিশোর গোয়াল ঘরে গরু বাঁধতে গিয়েছিল। সেখানে হঠাৎ হাজির হয় ওই সৎ বাবা অর্থাৎ কাকা। তখনই সৎছেলেকে কুপিয়ে খুন করার চেষ্টা করেন তিনি। কিশোরের গলায় ছুরিও চালান সুকুর।

তারপর সেখানে কী ঘটল?‌ এই ঘটনা যখন ঘটছে তখন স্থানীয় এক যুবক দেখতে পেয়ে চিৎকার করতেই পালিয়ে যায় সৎবাবা। পরে পুলিশ এসে সুকুরকে খুঁজে বের করে এবং গ্রেফতার করে। তখন কিশোরকে দুবরাজপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রতিবেশীদের সূত্রে খবর, স্ত্রীকে মারধর করতেন সুকুর। এবার এই ঘটনা।

বন্ধ করুন