বাড়ি > বাংলার মুখ > বেলপাহাড়িতে মাওবাদীদের মুখোমুখি হওয়ার কাহিনি সাজানো, দাবি পুলিশ সুপারের
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

বেলপাহাড়িতে মাওবাদীদের মুখোমুখি হওয়ার কাহিনি সাজানো, দাবি পুলিশ সুপারের

  • গত বৃহস্পতিবার বেলা ১২টা নাগাদ ঢাঙ্গিকুসুম এলাকায় সশস্ত্র মাওবাদী স্কোয়াডের মুখোমুখি হয়েছেন বলে দাবি করেন ৩ জন পর্যটক। তাদের দাবি ছিল, স্কোয়াডে নারী – পুরুষ মিলিয়ে ছিল মোট ৭ জন।

ঝাড়খণ্ড সীমানা লাগোয়া বেলপাহাড়ির ঢাঙ্কিকুসুম এলাকায় সশস্ত্র মাওবাদীদের দেখা পাওয়ার ঘটনার কোনও সারবত্তা নেই। শনিবার একথা জানিয়েছেন ঝাড়গ্রামের পুলিশ সুপার অমিত কুমার রাঠৌর। তিনি বলেন, মোবাইল খোয়া যাওয়া পরিবারের চাপে মাওবাদীর গল্প ফেঁদেছিলেন ওই পর্যটকরা। জেরায় সেকথা কবুল করেছেন তাঁরা। 

গত বৃহস্পতিবার বেলা ১২টা নাগাদ ঢাঙ্গিকুসুম এলাকায় সশস্ত্র মাওবাদী স্কোয়াডের মুখোমুখি হয়েছেন বলে দাবি করেন ৩ জন পর্যটক। তাদের দাবি ছিল, স্কোয়াডে নারী – পুরুষ মিলিয়ে ছিল মোট ৭ জন। তাঁরা পর্যটকদের সঙ্গে কোনও দুর্ব্যবহার করেনি। শুধু তাদের মোবাইল ফোনগুলি কেড়ে নিয়েছে। 

এর পর দিন শুক্রবার সকালে বেলপাহাড়ি এলাকায় রাস্তার কাজ বন্ধ করার হুঁশিয়ারি দিয়ে মাওবাদী পোস্টার পড়ে। পর পর ২ ঘটনায় তৎপর হয়ে ওঠে রাজ্য প্রশাসন। রাতারাতি উচ্চপর্যায়ের বৈঠক ডাকেন রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র। শনিবার ঝাড়গ্রাম পুলিশ লাইনে প্রায় ৩ ঘণ্টা সেই বৈঠক হয়। কী ভাবে এলাকায় মাওবাদী গতিবিধির মোকাবিলা করা হবে তার পরিকল্পনা হয় বৈঠকে। 

এর পরই পুলিশ সুপার জানান, মাওবাদীদের মুখোমুখি হওয়ার দাবি সম্পূর্ণ অসত্য। তবে পুলিশকে বিভ্রান্ত করায় এখন তার বিরুদ্ধে কোনও আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় কি না তা দেখার।

 

বন্ধ করুন