বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'জীবন দিয়ে ছানাদের রক্ষা পথকুকুরের', ধাওয়া করে ঘাতক গাড়িকে ধরলেন মহকুমা শাসক
 ছবি সৌজন্যে হিন্দুস্তান টাইমস।
 ছবি সৌজন্যে হিন্দুস্তান টাইমস।

'জীবন দিয়ে ছানাদের রক্ষা পথকুকুরের', ধাওয়া করে ঘাতক গাড়িকে ধরলেন মহকুমা শাসক

এসডিপিও দেবাশিস চক্রবর্তী জানান, 'ছোটোবেলা থেকেই কুকুর–বেড়ালের সঙ্গে আমার আত্মার সম্পর্ক।'

‌আদরের পথকুকুরকে গাড়ির চাকায় পিষে যেতে দেখেন মহকুমা পুলিশ অফিসার। গোটা ঘটনায় মুষড়ে পড়েছেন তিনি। ঘাতক গাড়ির চালককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে আলিপুরদুয়ারে। ঘটনাটি গত বুধবার ঘটে:s। জানা গিয়েছে, আর পাঁচটা দিনের মতো বুধবার পথ কুকুরদের খাইয়েছিলেন দেবাশিস চক্রবর্তী। খাওয়ার পর পথের ধারেই তাঁরা খেলছিল। তখন আচমকাই একটি গাড়ি এসে ভোটু নামে ওই পথকুকুরকে পিষে চলে যায়। চোখের সামনে ঘটনাটি দেখে কিছুটা স্তম্ভিত হয়ে পড়েন দেবাশিস। নিজেকে সামলে নিয়ে ঘাতক গাড়ির পিছনে ধাওয়া করেন তিনি। বেশ কিছুক্ষণ পর গাড়িটিকে ধরা সম্ভব হয়। মদ্যপ অবস্থায় গাড়ির চালককে প্রথমে আটক করা হয়। পরে তাঁকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। ইতিমধ্যে গোটা ঘটনার নিন্দা করে ধৃত ওই গাড়ি চালক সৌরভ ধরের বিরুদ্ধে পশুপ্রেমী সংস্থা ‘‌অ্যানিমেল হেল্পলাইন’‌–এর পক্ষ থেকে একটি মামলা দায়ের করা হয়। গাড়িটিকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

ঘটনার কথা বর্ণনা করতে গিয়ে দেবাশিস চক্রবর্তী জানান, 'ছোটবেলা থেকেই কুকুর–বেড়ালের সঙ্গে আমার আত্মার সম্পর্ক। দুর্ঘটনার সময়ে ভোটু পথের ধারে ওর বাচ্চাদের সঙ্গে খেলছিল। নিজের জীবন দিয়ে শিশুটিকে বাঁচিয়ে চলে গেল। এর প্রাণোচ্ছ্বল মুখটা ভুলতে পারছি না।' মামলাকারী পশুপ্রেমী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, দেবাশিসবাবুর হাতের যত্ন পেয়ে ভালোই দিন কাটছিল পথকুকুরদের। আমরা চাই, গাড়ির চালকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক যাতে ভবিষ্যতে এই ধরনের ঘটনা না ঘটে।

বন্ধ করুন