বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > CBSE class 12 result 2022: গৃহ শিক্ষক ছাড়াই ৯৯.২ শতাংশ নম্বর, CBSE-র দ্বাদশে বাজিমাত হাওড়ার খুশির
কৃতি ছাত্রী খুশি চৌধুরী।

CBSE class 12 result 2022: গৃহ শিক্ষক ছাড়াই ৯৯.২ শতাংশ নম্বর, CBSE-র দ্বাদশে বাজিমাত হাওড়ার খুশির

  • তার সাফল্যে খুশি হাওড়ার শিবপুরের বাড়ির সকলে। কমার্সের ছাত্রী খুশি সবচেয়ে বেশি নম্বর পেয়েছে অর্থনীতিতে। এই বিষয়ে একশোর মধ্যে ১০০ পেয়েছে খুশি। এ ছাড়া অ্যাকাউন্টেন্সি, অঙ্ক এবং বিজনেস স্টাডিজে ৯৯ করে এবং ইংরেজিতে ৯৪ নম্বর পেয়েছেন তিনি।

CBSE RESULT 2022, STUDENT, FIRST POSITION : গৃহ শিক্ষক ছাড়াই সিবিএসই’র দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় দুর্দান্ত ফল করলেন কলকাতার শ্রী শিক্ষায়তন স্কুলের ছাত্রী খুশি চৌধুরী। ৯৯.২ শতাংশ নম্বর পেয়ে স্কুলে মধ্যে প্রথম হলেন খুশি। শুধুমাত্র স্কুল শিক্ষকদের গাইডেন্সেই বাজিমাত। তার কথায়, ‘অনলাইনে পড়াশোনা হলেও সব সময় স্কুলের শিক্ষকদের পাশে পেয়েছি। সেই কারণে এত ভালো ফল করা সম্ভব হয়েছে।’

তার সাফল্যে খুশি হাওড়ার শিবপুরের বাড়ির সকলে। কমার্সের ছাত্রী খুশি সবচেয়ে বেশি নম্বর পেয়েছে অর্থনীতিতে। এই বিষয়ে একশোর মধ্যে ১০০ পেয়েছে খুশি। এ ছাড়া অ্যাকাউন্টেন্সি, অঙ্ক এবং বিজনেস স্টাডিজে ৯৯ করে এবং ইংরেজিতে ৯৪ নম্বর পেয়েছেন তিনি। পরীক্ষায় ভালো ফল হবে তা আশা করেছিলেন খুশি। কিন্তু এতটা ভালো ফল হবে তা ছিল তার প্রত্যাশার বাইরে। তবে পরীক্ষায় ভালো পর করার জন্য তিনি পরিশ্রম করেছিলেন। খুশির কথায়, ‘আমি অনেক বেশি পরিশ্রম করেছিলাম। কারণ দ্বাদশ শ্রেণির পরে কেরিয়ার শুরু হয়ে যায়। সেই কথা ভেবেই আমি পড়াশোনায় জোর দিয়েছিলাম ভালো ফল করার লক্ষ্যে। দশম শ্রেণির থেকে অনেক ভালো ফল হয়েছে। তার জন্য আমার খুব ভালো লাগছে।’

পরীক্ষায় ভালো ফলের জন্য শিক্ষকদের অবদানের কথা বলেন খুশি। তিনি বলেন, ‘শিক্ষকদের সাহায্য ছাড়া এত ভালো ফল করতে পারতাম না। শিক্ষকরা খুব সাহায্য করেছেন। অনলাইনে ক্লাস হলেও আমার কোনও প্রশ্ন থাকলে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে তা শিক্ষকদের জিজ্ঞেস করতাম এবং তারা আমাকে গাইড করতেন। ফলে বাইরের কোনও গৃহ শিক্ষকের সাহায্য ছাড়াই ওনারা আমাকে খুব সাহায্য করেছেন। শুধু স্কুল শিক্ষকদের গাইডেন্সেই আমি ভালো রেজাল্ট করেছি।’ পড়াশোনা ছাড়াও খুশি ব্যাডমিন্টন খেলতে ভালবাসেন খুশি। এছাড়া, নাচ এবং ওয়েব সিরিজও দেখতে ভালোবাসেন।

মেয়ের রেজাল্টে আনন্দিত খুশির মা রেখা চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘ওকে কোনদিনই টিউশন পড়াইনি। দশম শ্রেণি পর্যন্ত আমি নিজে পড়িয়েছি। স্কুলে যা পড়াচ্ছে সেটাকেই ভালো করে পড়তে বলেছিলাম মেয়েকে।’

বন্ধ করুন