বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মা জড়িয়ে ধরেছেন পাড়ার কাকুকে! দেখে ফেলল সন্তান, লজ্জায় আত্মঘাতী দেওর-বউদি
উস্তিতে আত্মহত্যা যুগলের। প্রতীকী ছবি (Getty Images/iStockphoto) (HT_PRINT)

মা জড়িয়ে ধরেছেন পাড়ার কাকুকে! দেখে ফেলল সন্তান, লজ্জায় আত্মঘাতী দেওর-বউদি

  • স্থানীয় সূত্রে খবর, স্বামী বাড়িতে না থাকায় একাকীত্বে ভুগতেন বাসনা। আর তখনই মানসের সঙ্গে তাঁর প্রণয়ের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

বিয়ে হয়েছিল বছর দশেক আগে। স্বামী বাইরে থাকতেন। সেই সুযোগে প্রতিবেশী দেওরের সঙ্গে পরকিয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন গৃহবধূ। আর নাবালক সৎ সন্তান দেখে ফেলেছিল প্রতিবেশী কাকুর সঙ্গে একেবারে অন্তরঙ্গ অবস্থায় রয়েছে মা। এরপরই মানসিক অবসাদ গ্রাস করে দুজনকেই। আর তারপরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেন প্রেমিক- প্রেমিকা। পরিবার সূত্রে খবর, উভয়ই তাদের নিজেদের বাড়িতে আত্মহত্যা করেছে। তাদের বাড়ি থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  মৃত বধূর নাম বাসনা পুরকাইত। বয়স ৩৪ বছর।  মৃত যুবকের নাম মানস সাউ। বয়স ২৯ বছর। দক্ষিণ ২৪ পরগনার উস্তি থানার একতারা গ্রামের ঘটনা। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, স্বামী বাড়িতে না থাকায় একাকীত্বে ভুগতেন বাসনা। আর তখনই মানসের সঙ্গে তাঁর প্রণয়ের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মানসের আসল বাড়ি সাগরের সাপখালি এলাকায়। রায়পাড়ায় পিসির বাড়িতে থাকতেন তিনি। প্রায় রোজই বাসনার কাছে আসতেন মানস। শনিবার রাতেও বাসনার কাছে এসেছিলেন মানস। ঘনিষ্ঠ হয়েছিলেন দুজনেই। এদিকে সেই সময় ঘরে ছিল বাসনার নাবালক পুত্র সুদীপ। মা ও প্রতিবেশী কাকুর মধ্য়ে অন্তরঙ্গ মুহূর্ত দেখে ফেলে সুদীপ। এরপরই এনিয়ে লজ্জায় পড়ে যান মা বাসনা। এবার ছেলের মাধ্যমে জানাজানি হয়ে যাবে গোটা ঘটনা। এই আশঙ্কায় ভুগতে শুরু করেন দুজনেই। এরপরই চরম সিদ্ধান্ত নেন প্রেমিক- প্রেমিকা। যে যার বাড়িতে আত্মহত্যা করেন তাঁরা। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে উস্তি থানার পুলিশ। 

 

বন্ধ করুন