বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Sukanya Mondal Summoned by CBI: সাক্ষী হিসেবে তলব সুকন্যাকে, সংস্থার নথি নিয়ে আসতে বলল CBI

Sukanya Mondal Summoned by CBI: সাক্ষী হিসেবে তলব সুকন্যাকে, সংস্থার নথি নিয়ে আসতে বলল CBI

অনুব্রত মণ্ডল ও মেয়ে সুকন্যা। 

আগামী সপ্তাহের সোমবারের মধ্যে সিবিআইয়ের সঙ্গে দেখা করতে বলা হয়েছে সুকন্যা এবং অ্যাগ্রোকেম ফুড লিমিটেডের অপর ডিরেক্টর বিদ্যুৎবরণ গায়েনকে। দুজনকেই ১৬০ ধারায় নোটিস ধরানো হয়েছে। 

অনুব্রত মণ্ডলের মেয়ে সুকন্যা মণ্ডলের সংস্থা এএনএম অ্যাগ্রোকেম ফুড লিমিটেডকে নোটিশ পাঠাল সিবিআইয়ের গোয়েন্দারা। কোম্পানির যাবতীয় নথিপত্র এবং সমস্ত তথ্য প্রমাণ নিয়ে আগামী সপ্তাহের সোমবারের মধ্যে সিবিআইয়ের সঙ্গে দেখা করতে বলা হয়েছে সুকন্যা এবং সংস্থার অপর ডিরেক্টর বিদ্যুৎবরণ গায়েনকে। দুজনকেই ১৬০ ধারায় নোটিস ধরানো হয়েছে।

এদিকে আজ সকালে অনুব্রত মণ্ডলের ঘনিষ্ঠের রাইস মিলে অভিযান চালায় সিবিআই। সিবিআই সূত্রে খবর, 'শিব শম্ভু' নামে ওই রাইস মিলের সমস্ত নথি চেয়ে পাঠানো হয়েছে। সেই রাইস মিলের বর্তমান মালিক সঞ্জীব মজুমদারকে তলব করেছে সিবিআই। সিবিআইয়ের অভিযোগ, বাজারদর থেকে অনেক কম দামে রীতিমতো হুমকি দিয়ে বিভিন্ন সম্পত্তি নিজেদের দখলে করেছিলেন অনুব্রত মণ্ডল।

এদিকে সিবিআই তদন্তকারীদের অভিযোগ, গরুপাচারের লভ্যাংশ থেকে লাভবান হয়ে থাকতে পারেন অনুব্রত মণ্ডলের মেয়ে সুকন্যাও। এই আবহে তাঁর সংস্থার সম্পত্তির খতিয়ান জানতে সাক্ষী হিসাবে তলব করা হয়েছে সুকন্যা এবং বিদ্যুৎবরণকে। তদন্তকারীদের দাবি, অ্যাগ্রোকেম ফুড প্রাইভেট লিমিটেডের মাধ্যমে একাধিক সম্পত্তি কেনা হয়েছে। সেই সম্পত্তি কেনার টাকার উৎস সম্পর্কে জানতে চাইছেন তদন্তকারীরা।

তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, ২০১৫ সালের শেষের দিক থেকে প্রায় প্রত্যেকদিন বীরভূম জেলার কোনও না কোনও ব্যাংকে অনুব্রত মণ্ডল ও তাঁর মেয়ের অ্যাকাউন্টে নগদ জমা হয়েছে। তবে অনুব্রতর কোনও ব্যবসা থেকে আয় হয়েছে কি না, তা নিয়ে সন্দিহান তদন্তকারীরা। জানা গিয়েছে, ২০১৫ সালের পর থেকে নগদ জমা হয়েছে প্রায় ১৫ কোটি টাকা। এই বিপুল পরিমাণ টাকার সঙ্গে হাওয়ালা যোগ থাকতে পারে বলে মত তদন্তকারীদের।

বন্ধ করুন