বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মানুষ জানে কী পরিমাণ টাকা নিয়ে উনি চাকরি দিতেন, শুভেন্দুকে তোপ অখিল পুত্রের
সুপ্রকাশ গিরি

মানুষ জানে কী পরিমাণ টাকা নিয়ে উনি চাকরি দিতেন, শুভেন্দুকে তোপ অখিল পুত্রের

  • শুভেন্দু অধিকারী কাঁথি কো–অপারেটিভ, কার্ড ব্যাঙ্ক ও বিদ্যাসাগর সেন্ট্রাল কো–অপারেটিভ ব্যাঙ্ক, এই তিনটি ব্যাঙ্কে একটা সময়ে চেয়ারম্যান ছিলেন। সেই তিনটি ব্যাঙ্কে চেয়ারম্যান থাকাকালীন লাখ লাখ টাকা নিয়ে শুভেন্দুবাবু চাকরি দিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন সুপ্রকাশবাবু।

‌রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে দুর্নীতিগ্রস্ত নেতা বলে আক্রমণ করলেন তৃণমূল নেতা সুপ্রকাশ গিরি। সম্প্রতি সুপ্রকাশ গিরির বাবা অখিল গিরির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনেছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। এই প্রসঙ্গে পাল্টা শুভেন্দুকে আক্রমণ করে সুপ্রকাশ জানান, তাঁর বাবার বিরুদ্ধে দুর্নীতির প্রমাণ দিতে পারলে তিনি রাজনীতি ছেড়ে দেবেন।

কাঁথি পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান তথা কাঁথি সাংগঠনিক জেলার তৃণমূল যুব সভাপতি সুপ্রকাশ গিরি অভিযোগ করেন, শুভেন্দু অধিকারী ২০১১ সাল থেকে দুর্নীতির সঙ্গে আষ্টেপৃষ্টে জড়িত। সরকারকে ব্যবহার করে হলদিয়া শিল্পাঞ্চল থেকে কোলাঘাট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র সর্বত্রই টাকা লুঠ করেছেন। কোলাঘাট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের পরিত্যক্ত ছাই বিক্রি করে তোলা তুলেছেন। ২০১২ সালে কাঁথি পুরসভায় বসে ৩৯০০ জনকে টাকার বিনিময়ে প্রাথমিকে নিয়োগ পাইয়ে দিয়েছেন।’‌ একইসঙ্গে সুপ্রকাশ জানান, ‘‌সরকারের বিভিন্ন দফতরে নিজের বাড়ির কাজের লোক থেকে শুরু করে গাড়ির চালক, স্থানীয় একটি নামজাদা ক্লাবের লোকজনদের অনৈতিক উপায়ে চাকরি পাইয়ে দিয়েছেন।’‌

শুভেন্দু অধিকারী কাঁথি কো–অপারেটিভ, কার্ড ব্যাঙ্ক ও বিদ্যাসাগর সেন্ট্রাল কো–অপারেটিভ ব্যাঙ্ক, এই তিনটি ব্যাঙ্কে একটা সময়ে চেয়ারম্যান ছিলেন। সেই তিনটি ব্যাঙ্কে চেয়ারম্যান থাকাকালীন লাখ লাখ টাকা নিয়ে শুভেন্দুবাবু চাকরি দিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন সুপ্রকাশবাবু। এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, ‘‌যে ব্যাঙ্কগুলিতে শুভেন্দুবাবু চেয়ারম্যান ছিলেন, সেই ব্যাঙ্কগুলিতে ভুড়ি ভুড়ি দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। কাঁথিতে কেন, সারা রাজ্যের মানুষ জানে কী পরিমাণ টাকা নিয়ে উনি চাকরি দিতেন।’‌ এসএসসি, প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে যখন তৃণমূলকে কোনঠাসা করছে বিরোধীরা, তখন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধেই বিভিন্ন ক্ষেত্রে নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগ উঠছে।

বন্ধ করুন