বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ইস্তফা দেবেন না, তৃণমূল আসন বিক্রি করে দেবে, জহর সরকারকে পরামর্শ শুভেন্দুর
শুভেন্দু অধিকারী। (Utpal Sarkar)

ইস্তফা দেবেন না, তৃণমূল আসন বিক্রি করে দেবে, জহর সরকারকে পরামর্শ শুভেন্দুর

  • এদিন শুভেন্দু বলেন, ‘আমি জহরবাবুকে বলব। আপনি ইস্তফা দেবেন না। আপনি ইস্তফা দিলেই ওই আসন বিক্রি করে দেবে তৃণমূল। এর আগে ওরা ৭৫ কোটি টাকায় অ্যালকেমিস্টের কর্ণধার কেডি সিংকে রাজ্যসভার আসন বিক্রি করে দিয়েছে।

জহর সরকারের সঙ্গে তৃণমূলের টানাপোড়েন নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। শনিবার বিকেলে পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুরে এক জনসভার পর এই নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সামনে মন্তব্য করেন তিনি। জহর সরকারকে ইস্তফা না দিতে পরামর্শ দেন শুভেন্দু।

এদিন শুভেন্দু বলেন, ‘আমি জহরবাবুকে বলব। আপনি ইস্তফা দেবেন না। আপনি ইস্তফা দিলেই ওই আসন বিক্রি করে দেবে তৃণমূল। এর আগে ওরা ৭৫ কোটি টাকায় অ্যালকেমিস্টের কর্ণধার কেডি সিংকে রাজ্যসভার আসন বিক্রি করে দিয়েছে। বরং আপনি পদে থেকে সংবাদমাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ১ বছরে তৃণমূলে আপনার অভিজ্ঞতা কথা জানিয়ে যান।’

বিনয় মিশ্রকে কি সত্যিই ফোন করেছিলেন?অভিষেককে বিস্ফোরক চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর

সম্প্রতি তৃণমূলের দুর্নীতির বিরুদ্ধে সংবাদমাধ্যমের সামনে সরব হন দলেরই রাজ্যসভার সাংসদ জহর সরকার। প্রসার ভারতীর প্রাক্তন অধিকর্তা বলেন, ‘প্রথমে তো বিশ্বাসই করতে পারিনি যে কারও বাড়ি থেকে অত টাকা উদ্ধার হতে পারে। সঙ্গে সঙ্গে বাড়ির লোকেরা আমাকে বলল রাজনীতি ছেড়ে দেও। সম্মান রাখতে না পারলে তাই করতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘বন্ধুরা ফোন করে জানতে চাইছে, কী রে? এখনো তুই আছিস? কত পেয়েছিস? এই ধরণের লাঞ্ছনার মুখে জীবনে পড়তে হয়নি। কার সঙ্গে কার ব্যক্তিগত সম্পর্ক কী তা নিয়ে আমি বিব্রত নই। কিন্তু দুর্নীতির টাকা দিয়ে বান্ধবীকে ফ্ল্যাট কিনে দেব এটা আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির শিক্ষা নয়।’ এর পরই জহর সরকারের উদ্দেশে তৃণমূলের লাগাতার হামলা শুরু হয়। জহরবাবু বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বললেই ইস্তফা দিয়ে দেব।’

 

বন্ধ করুন